আমাদের দৈনন্দিন জীবনে রূপচর্চার সবচেয়ে বড় অন্তরায় হল চুল পড়া| আপনি পুরুষই হন বা নারী, এই সমস্যা থেকে কারোরই মুক্তি নেই| আপনি কি জানেন যে প্রতি ৫ জন নারীর মধ্যে ৩জন এই প্রচুর চুল পড়ে যাওয়ার মতো  সমস্যার শিকার?

কেন এমন হয়, তার একাধিক কারণ আছে| বংশগত সমস্যা হতে পারে, জলের কঠিনতার কারণে হতে পারে, অযত্নজনিত কারণে বা অস্বাস্থ্যকর খাদ্যাভ্যাসের জন্যও হতে পারে, অথবা চুলে অতিরিক্ত ফ্যাশন বা কায়দা করার প্রবণতাকেও কারণ হিসেবে উড়িয়ে দেওয়া যায় না| সমস্যা তো অনেক রকম, কিন্তু সমাধানও আছে প্রচুর| আমরা কিছু ঘরে তৈরি প্রতিষেধক বা টোটকার কথা বলব, যা শুধু চুল পড়া বন্ধই করবে না, চুলের গোড়াও মজবুত  করবে|
নিমের শক্তি
 

নিমের শক্তি

চুলে লাগানোর জন্য আপনার চাই ১০-১২টি নিমপাতা| জলে নিমপাতা ফুটিয়ে নিন| ঠান্ডা হলে ছেঁকে ফেলুন| এবার শ্যাম্পু করার পরে এই নিমজল দিয়ে চুল ধুয়ে ফেলুন| ১০ মিনিট পরে ঈষদুষ্ণ জলে আবার চুল ধুয়ে নিন| নরম তোয়ালে দিয়ে আলতো হাতে সাবধানে চুল মুছুন|  এই নিমজলের নিয়মিত ব্যবহার সময়ের সঙ্গে সঙ্গে আপনাকে সুফল দেবে|

গ্রিক ইয়োগার্ট আর মধু দিয়ে তৈরি চুলের মাস্ক
 

গ্রিক ইয়োগার্ট আর মধু দিয়ে তৈরি চুলের মাস্ক

পার্টিতে যাবেন বলে তৈরি হতে গিয়ে দেখছেন যে চুল খুব ম্যাড়ম্যাড়ে আর বিশ্রী দেখাচ্ছে? এই মাস্কটি ব্যবহার করে দেখুন, আপনার চুলের গোড়াকে শক্ত করে চুলে এমন উজ্জ্বলতা আনবে, যে আপনি হয়ে উঠবেন পার্টির মধ্যমণি| আপনার চাই ২ টেবিলচামচ গ্রিক ইয়োগার্ট, ১ টেবিলচামচ মধু আর একটা গোটা পাতিলেবুর রস| সবক’টি উপাদান একসঙ্গে মিশিয়ে চুলে লাগিয়ে ভালো করে মাথায় মালিশ করুন| ৩০ মিনিট পরে চুল ধুয়ে দেখুন! ৪৫ মিনিটেরও কম সময়ে এমন চুলের শোভা যে নামীদামি পার্লারকেও তাক লাগিয়ে দেবে|

খাদ্য-সচেতনতা
 

খাদ্য-সচেতনতা

যে কোনও অসুস্থতায় শুধু বাইরে থেকে সচেতন হলেই চলবে না, শরীরের ভিতরেও নজর দেওয়া জরুরি| ঠিক সেই কারণেই ঘন উজ্জ্বল চুলের জন্য স্বাস্থ্যকর সুষম খাবার খাওয়ার অভ্যাসের প্রয়োজন| আপনার খাবারে নিয়মিতভাবে থাকতে হবে বেশি প্রোটিনযুক্ত খাবার, যেমন দুধ, ডিমের সাদা অংশ আর মাছ| মাছ আর ফ্ল্যাক্সসিডে আছে পর্যাপ্ত পরিমাণে ওমেগা থ্রি ফ্যাটি অ্যাসিডস, যা নিয়মিতভাবে আপনার খাবারে থাকাটা অত্যন্ত প্রয়োজনীয়|


 

কারিপাতা
 

কারিপাতা

আপনার চুলে যে তেল ব্যবহার করেন, তাতে কয়েকটি কারিপাতা ফেলে ফুটিয়ে নিয়ে ঠান্ডা করে রাখুন| তারপর সেই তেলটি ঘষে ঘষে মাথায় মাখুন| ভালো ফল পেতে ঘণ্টা দুয়েক বা সারা রাত এই তেল মাথায় মেখে থাকবেন| সপ্তাহে দু’বার এমন করলে চুলের বাড়বৃদ্ধি হবে দ্রুত আর চুলও হবে ঘন|

গ্রিন টি কন্ডিশনার
 

গ্রিন টি কন্ডিশনার

গরম জলে ২-৩টি গ্রিন টি ব্যাগ ভিজিয়ে রাখুন| চায়ের পাতা ভালোভাবে ভিজে গেলে ওই জল মাথায় ঢেলে দিন| সময়ের সঙ্গে সঙ্গে দেখবেন, আপনার চুলের গোড়া মজবুত হবে আর চুল হবে মসৃণ|