বাতাসে ঠান্ডার শিরশিরানি ভাব এসে গেছে দিব্যি! কাজেই এটাই সময় ত্বক আর চুল পরিচর্যার রুটিন পালটে ফেলার! আপনার চুলের ধরন যাই হোক না কেন, শীতের রুক্ষতার সঙ্গে মানিয়ে নেওয়া কিন্তু বেশ কঠিন লাগতে পারে। ঠান্ডা হাওয়া, তাপমাত্রা নেমে যাওয়া, বাড়িতে ঢোকা বেরোনো করতে গিয়ে বারবার পরিবর্তিত তাপমাত্রার মুখোমুখি হওয়া, সব মিলিয়ে চুল ভীষণ রুক্ষ, খসখসে হয়ে যায়, তা বশে রাখাও মুশকিল হয়! তা ছাড়া বাতাসে আর্দ্রতা অনেকটা কমে যাওয়ায় চুল থেকেও আর্দ্রতা হারিয়ে যায়। ফলে চুল ভঙ্গুর হয়ে যায়, সহজেই ভেঙে ঝরে পড়ে। তা ছাড়া গোটা শীতকাল জুড়ে চুল বিবর্ণ আর নিষ্প্রাণ দেখায়! পার্টির মরশুমে চুলের দশা যদি এমন হয়, তা হলে কি আর ভালো লাগে?

তবে আশা হারাবেন না! শীতে রুক্ষ আর শুকনো চুলের হাত থেকে মুক্তি পেতে যতরকম চুল পরিচর্যার টিপস রয়েছে, সবই রইল আপনার জন্য!

 

01. চুলে ছড়িয়ে দিন তেলের পুষ্টিগুণ

01. চুলে ছড়িয়ে দিন তেলের পুষ্টিগুণ

শীতে বাড়ির ভেতরের তাপমাত্রা বাইরের চেয়ে বেশ খানিকটা উষ্ণ থাকে। এর ফলে চুল আর স্ক্যাল্প থেকে আর্দ্রতা নষ্ট হয়ে যেতে পারে। চুলের আর্দ্রতা ধরে রাখতে তেল মাখুন অথবা লিভ-ইন কন্ডিশনার লাগিয়ে রাখুন, তাতে চুলের রুক্ষতাও কম হবে। নারকেল তেল বা ক্যাস্টর অয়েলের মতো ভারী তেল মাখতে পারেন। শ্যাম্পু করার আধ ঘণ্টা আগে স্ক্যাল্পে ভালোভাবে তেল মাসাজ করে নিন। নিয়মিত তেল মাখলে আপনার চুল প্রয়োজনীয় ফ্যাটি অ্যাসিড পাবে। প্রচণ্ড ঠান্ডার সঙ্গে লড়াই করতে তা খুব জরুরি।

বিবি-র পছন্দ: ডাভ এলিক্সির হেয়ার ফল রেসকিউ হেয়ার অয়েল - রোজ অ্যান্ড আমন্ড অয়েল/ Dove Elixir Hair Fall Rescue Hair Oil - Rose & Almond Oil

 

02. ঘন ঘন শ্যাম্পু করবেন না

02. ঘন ঘন শ্যাম্পু করবেন না

গরম যখন ধীরে ধীরে শীত আর ঠান্ডায় বদলে যাচ্ছে, সেই সময় চুলের যত্নের রুটিনেও কিছু বদল আনতে হবে, আর তার প্রথম ধাপ হল বারবার শ্যাম্পু না করা। যেহেতু এই সময়টায় বেশি ঘাম হয় না, তাই চুলও কম তেলতেলে হয় আর অপেক্ষাকৃত বেশি সময় ধরে পরিষ্কার থাকে। অন্তত দু'দিন ব্যবধান রেখে শ্যাম্পু করবেন, শ্যাম্পুর ফরমুলা যেন চুলের রুক্ষভাবের মোকাবিলা করতে পারে। দুটো শ্যাম্পুর মাঝে চুল নেতিয়ে গেলে বা বিবর্ণ দেখালে ড্রাই শ্যাম্পু ব্যবহার করতে পারেন, তাতে দুই শ্যাম্পুর মাঝের ব্যবধান আরও বাড়াতে পারবেন।

বিবি-র পছন্দ: লাভ বিউটি অ্যান্ড প্ল্যানেট অ্যান্টি ফ্রিজ কম্বো+টিজি বেড হেড ওহ বি হাইভ ম্যাট ড্রাই শ্যাম্পু/ Love Beauty & Planet Anti Frizz Combo + TIGI Bed Head Oh Bee Hive Matte Dry Shampoo

 

03. ডিপ কন্ডিশনিং মাস্ক লাগান

03. ডিপ কন্ডিশনিং মাস্ক লাগান

নিয়মিত অয়েল মাসাজ আর বেশি শ্যাম্পু না করা, এই দুটো নিয়ম মেনে চললেই শীতের মাসগুলোয় স্ক্যাল্প সুরক্ষিত থাকবে। আর চুল যদি বেশি শুকনো আর রুক্ষ বলে মনে হয়, তা হলে সপ্তাহে অন্তত একদিন ডিপ কন্ডিশনিং মাস্ক লাগান। হেয়ার মাস্ক চুলের শুষ্কতা কমাতে সাহায্য করে, চুলের আর্দ্রতা ধরে রেখে চুল স্বাস্থ্যপূর্ণ ও ঝলমলে রাখে!

বিবি-র পছন্দ: ট্রেসমে কেরাটিন স্মুদ ডিপ স্মুদিং মাস্ক/ Tresemme Keratin Smooth Deep Smoothing Mask

 

04. চুল শুকোন খোলা হাওয়ায়

04. চুল শুকোন খোলা হাওয়ায়

শীতের ঠান্ডা এমনিতেই চুল রুক্ষ আর শুকনো করে তোলার পক্ষে যথেষ্ট; চুল পরিচর্যার রুটিনে বাড়তি তাপ যোগ করে সেই প্রক্রিয়ায় গতি দেওয়ার কোনও দরকার নেই! ব্লো ড্রায়িং বা হিট স্টাইলিং ভঙ্গুর চুলের ভীষণ ক্ষতি করে দেয়, চুল অসম্ভব শুকনো হয়ে যায়, রুক্ষ উড়োচুলের বাড়বাড়ন্ত দেখা যায়। ফলে ব্লো ড্রাই করবেন না, চুল শুকিয়ে নিন খোলা বাতাসে। এ ছাড়া শীতের দিনে চুল ভালো রাখতে তাপহীন হেয়ারস্টাইল/ heatless hairstyles বেছে নিন।

 

05. স্ট্যাটিক নিয়ন্ত্রণে সিল্কের ফ্যাব্রিক

05. স্ট্যাটিক নিয়ন্ত্রণে সিল্কের ফ্যাব্রিক

চুলের স্ট্যাটিক কমাতে সিল্ক কার্যকর এবং তা শীতের রুক্ষতাকে ধারেকাছে ঘেঁষতে দেয় না! বাইরে বেরোনোর সময় স্কিল্কের স্কার্ফ দিয়ে মাথা ঢেকে নিন, চুল বাঁধতে ব্যবহার করুন সিল্কের স্ক্রাঞ্চি, বালিশের ওয়াড় হিসেবেও সুতির বদলে বেছে নিন সিল্ক। এতে চুল তো সুন্দর থাকবেই, পাশাপাশি শীতের দিনে ঝলমলে সিল্ক কেনার এর চেয়ে ভালো সুযোগ আর পাবেন না কিন্তু!