মেকআপ প্রডাক্টের সঙ্গে স্কিনকেয়ার প্রডাক্টের একটা তফাত রয়েছে। ত্বকের যত্নের নানা সরঞ্জাম যেমন বেশ অনেকদিন ধরে ব্যবহার করা যায়, মেকআপ প্রডাক্টের বেলায় কিন্তু তেমনটা হয় না! মেকআপ প্রডাক্টের শেলফ লাইফ অনেক কম এবং মেয়াদ ফুরিয়ে যাওয়া মেকআপ ব্যবহার করলে আপনার ত্বকে তার মারাত্মক ক্ষতিকর প্রভাব পড়তে পারে! সমস্যা হল, এই তিন চার মাস লকডাউন চলাকালীন আমাদের বেশিরভাগ মেয়েই মেকআপের ছিটেফোঁটাও ব্যবহার করেননি; অর্থাৎ আমাদের অনেকের কাছেই এমন অনেক মেকআপ প্রডাক্টের প্রায় গোটাটাই রয়ে গেছে যা খুব শিগগিরই হয়তো মেয়াদ পেরিয়ে যাবে (ভাবলেই কান্না পাচ্ছে তো!)।

তবে কান্নাকাটির দরকার খুব একটা নেই! কারণ একেবারে ফেলে না দিয়ে পুরনো মেয়াদ ফুরনো মেকআপের জিনিসপত্র নতুন করে ব্যবহার করতে পারেন আপনি! অবাক হচ্ছেন তো? আসলে এটাই সত্যি! দেখে নিন ফেলে না দিয়ে কীভাবে পুরনো মেকআপ নতুন করে কাজে লাগাতে পারেন আপনি!

 

আইশ্যাডো

আইশ্যাডো

আইশ্যাডোর মনমাতানো রংগুলো দেখতে এত ভালো লাগে যে ফেলে দেওয়ার কথা ভাবলেই বুকটা ভেঙে যায়! ফেলবেন না, বরং পুরনো আইশ্যাডোকে বদলে নিন কাস্টমাইজড নেল পলিশে! আইশ্যাডোর কেস থেকে রংটা কুরে বের করে নিন। তারপর মিহি করে গুঁড়ো করে মিশিয়ে দিন ক্লিয়ার নেল পলিশের সঙ্গে! ব্যস, আপনার হাতে চলে এসেছে একটা সম্পূর্ণ নতুন রং! ইচ্ছে করলে দুটো শেড মিশিয়েও তৈরি করে নিতে পারেন তাক লাগানো নতুন রং!

 

মাস্কারা

মাস্কারা

যতরকম মেকআপ রয়েছে, তার মধ্যে মাস্কারার মেয়াদ সবচেয়ে কম (মোটামুটি মাসছয়েক)। এই সময়ের পর মাস্কারা এত ঘন হয়ে যায় যে ব্যবহারযোগ্য থাকে না। তা ছাড়া পুরনো মাস্কারা পরা চোখের পক্ষেও ভালো নয়, বিশ্রী সংক্রমণ হতে পারে। তাই মাস্কারা ফেলে দেওয়ার পরামর্শই দেওয়া হয়! তবে ফেলবেন না মাস্কারার ওয়ান্ড অর্থাৎ ব্রাশটা। হালকা গরম সাবানজলে ডুবিয়ে ব্রাশের গায়ে লেগে থাকা বাড়তি মাস্কারাটুকু ধুয়ে ফেলুন খুব ভালোভাবে। তারপর পরিষ্কার ওয়ান্ডটা ব্যবহার করুন স্পুলির মতো করে, ভুরু শেপ করার কাজে। তা ছাড়া মাস্কারা ওয়ান্ডের গায়ে অল্প হেয়ারস্প্রে ছিটিয়ে তা দিয়ে বশে আনতে পারেন উড়ো চুল। লিপ স্ক্রাবের পাশাপাশি মাস্কারা ওয়ান্ড দিয়েও ঠোঁট এক্সফোলিয়েট করতে পারেন।

 

লিপ বাম

লিপ বাম

লিপ বামের কৌটো অর্ধেক ফুরনোর আগেই যদি মেয়াদ পেরিয়ে যায়, রাগ হওয়া স্বাভাবিক! তবে ফেলবেন না, অন্য কাজে লাগাতে পারেন আপনার এক্সপায়ার্ড লিপ বাম। নখের কিউটিকলে লাগান, নখের গোড়ায় বাড়তি পুষ্টি সঞ্চারিত হবে। অথবা পায়ের ত্বক রুক্ষ হলে সেখানেও লাগাতে পারেন। জুতো পরার আগে পায়ে লিপ বাম মেখে নিলে ঘষা কম লাগে, ফলে জুতোর জন্য পায়ে ফোসকাও পড়ে না।

 

লিপস্টিক

লিপস্টিক

মেয়াদ ফুরোলে লিপস্টিক ফেলে দেওয়া ছাড়া উপায় নেই, তবে শুকনো হয়ে যাওয়া লিপস্টিক লাগাতে পারেন অন্য কাজে! একটা চামচে শুকনো লিপস্টিকটা নিয়ে গরম করুন, তাতে দিন অল্প ভেসলিন পেট্রোলিয়াম জেলি/ Vaseline Petroleum Jelly। ছোট খালি কৌটোয় ভরে রেখে দিন, আপনার সারা বছরের টিন্টেড লিপ বামের জোগাড় হয়ে যাবে!