সুঠাম, সুন্দর শেপের ভুরু আমাদের মুখে এনে দেয় এক অন্য মাত্রা। ভুরু সরু করে থ্রেড করেই রাখুন, বা যেমন ইচ্ছে বাড়তে দিন, ভুরুর শেপের ওপরেই আপনার মুখের সৌন্দর্য নির্ভর করে অনেকটাই, তাই না? কিন্তু এই করোনা পরিস্থিতিতে বিউটি পার্লারে গিয়ে ভুরু থ্রেড করাটা খুব একটা বুদ্ধিমানের

কাজ নয়। আবার নিজে নিজে ভুরু শেপ করতে গেলেও তার ফল মনের মতো নাও হতে পারে। তা হলে এমন পরিস্থিতিতে কী করণীয়? উত্তরটা সহজ - মেকআপের সাহায্যে ভুরুজোড়া সুন্দর করে সাজিয়ে নেওয়া - টুইজিং বা প্লাকিংয়ের কোনও গল্পই নেই! দারুণ, না?

 

ফাঁপানো ভুরু

ফাঁপানো ভুরু

ফোটো সৌজন্য: @johanna_vossou_makeup

ভুরুজোড়া একটু ফাঁপিয়ে তুলে মুখে বাড়তি ডাইমেনশন আনতে চান? দেখে নিন টিপস:

ধাপ 01: ক্লিয়ার মাস্কারা ব্রাশ দিয়ে ভুরু ওপরের দিকে স্ট্রোক করে ব্রাশ করে নিন। এতে ভুরুর প্রতিটি রোম দীর্ঘায়িত হবে, ভুরু ফুলোফুলো দেখাবে।

ধাপ 02: এবার আইব্রো পেনসিল দিয়ে ভুরুর মাঝে রোমের ফাঁকফোকরের জায়গাগুলো ভরাট করে দিন। ল্যাকমে অ্যাবসলিউট প্রিসিশন আই আর্টিস্ট আইব্রো পেনসিল/Lakme Absolute Precision Eye Artist Eyebrow Pencil ব্যবহার করতে পারেন।

ধাপ 03: আর একবার ক্লিয়ার মাস্কারার ব্রাশ দিয়ে ভুরু আঁচড়ে নিন, যাতে আইব্রো পেনসিলের রং ব্লেন্ড হয়ে যায়, আর আপনি পেয়ে যান ফাঁপানো, ঘন ভুরু!

 

ডিফাইনড ভুরু

ডিফাইনড ভুরু

সুন্দর, সুঠাম ভুরুর আকর্ষণ চিরকালীন। যে কোনও টিউটোরিয়াল দেখুন, বা ইনস্টাগ্রামে মেকআপ লুক দেখুন, বুঝতে পারবেন সুন্দর শেপের নিখুঁত ভুরু কতটা ট্রেন্ডি আজকাল!

ধাপ 01: এই লুক তৈরি করতে আপনার দরকার একটা ব্রো পমেড আর কোনাচে ব্রাশ। ব্রাশে সামান্য রং নিন, তারপর ওপরের দিকে স্ট্রোকে ভুরুতে লাগিয়ে নিন।

ধাপ 02: এবার ভুরুতে পছন্দমতো শেপ এঁকে নিন, ভুরুর শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত এঁকে নেবেন। হালকা, নরম স্ট্রোক দিন যাতে অস্বাভাবিক না দেখায়।

ধাপ 03: পছন্দসই শেপ পেয়ে গেলে স্পুলি বা ক্লিয়ার মাস্কারা ব্রাশ দিয়ে ভুরু আঁচড়ে নিন।

মূল ফোটো সৌজন্য: @kriti.kharbanda