চোখের মেকআপ নিয়ে যদি কথা হয়, তা হলে বলতেই হবে এ বিষয়ে নিত্যনতুন ট্রেন্ডের কোনও অভাব নেই! একটা আই মেকআপ লুক ঠিকমতো রপ্ত করতে না করতেই আরও পাঁচটা এসে যায়। আর চোখদুটিকে নতুন নতুন সাজে সাজিয়ে তুলতে যাঁরা ভালোবাসেন, তাঁরা যে সবক'টি লুকই আয়ত্ত করতে চাইবেন তাতে আর সন্দেহ কী! কিছু আই মেকআপ করা সহজ, আবার কিছু লুক তৈরি করতে হলে কিছু বিশেষ টিপস জানা থাকলে সুবিধে হয়। তাতে কাজটা সহজ হয়, ঠিকঠাক হয়।

গ্লসি চোখের পাতার কথাই ধরা যাক! গ্লসি আইলিডস এখন দারুণ ট্রেন্ডি, কিন্তু ঠিকভাবে করতে না পারলে বা ভুল প্রডাক্ট ব্যবহার করলে আপনার পুরো লুকটাই ঘেঁটে নষ্ট হয়ে যাবে। তাই গ্লসি আইলিড একদম নিখুঁতভাবে করতে চাইলে মেনে চলুন এই তিনটি ধাপ।

 

ধাপ 01: চোখের পাতায় প্রাইমার লাগান

ধাপ 01: চোখের পাতায় প্রাইমার লাগান

শুরুতেই চোখের পাতায় প্রাইমার লাগিয়ে নিন। এতে একটা মসৃণ আর সমান বেস তৈরি হবে, চোখের মেকআপ অনেকক্ষণ নিখুঁত থাকবে। গ্লসি আইলিড তৈরি করতে হলে চোখের পাতায় প্রাইমার লাগিয়ে নেওয়া খুব জরুরি। অল্প আই প্রাইমার নিয়ে চোখের পাতায় ড্যাব করে করে লাগিয়ে নিন।

 

ধাপ 02: শিমার আইশ্যাডো পরে নিন

ধাপ 02: শিমার আইশ্যাডো পরে নিন

এবার আইশ্যাডো পরার পালা; মেটালিক ফিনিশ অথবা শিমার আইশ্যাডো বেছে নিন। গ্লিটার ব্যবহার করবেন না কোনওমতেই! আইশ্যাডোর টেক্সচার যত ফাইন হবে, লুকটাও তত ভালোভাবে খুলবে। যে কোনও শেডের আইশ্যাডো বাছতে পারেন, তবে মনে রাখতে হবে গ্লসি হয়ে গেলে শেডটি তার আসল রঙের চেয়ে গাঢ় দেখাবে। তাই প্রথমে একটু হালকা শেড দিয়ে শুরু করাই ভালো। পরে হাত পাকা হয়ে গেলে গাঢ় আর উজ্জ্বল শেড দিয়ে ট্রাই করবেন।

 

ধাপ 03: গ্লস পরুন

ধাপ 03: গ্লস পরুন

এবারের ধাপটাই সবচেয়ে আকর্ষণীয়। চোখের পাতায় গ্লসের ছোঁয়া লাগবে এবার। স্বচ্ছ লিপ গ্লস বা টিন্টেড লিপ বাম নিন। ভেসলিন লিপ থেরাপি কালার অ্যান্ড কেয়ার চ্যাপস্টিক - স্ট্রবেরি/ বেছে নিন। আঙুলে খানিকটা লিপ বাম বা গ্লস নিয়ে পাতলা করে চোখের পাতায় লাগিয়ে নিন। গ্লসটা সঙ্গে রেখে দিন যাতে মাঝেমধ্যে টাচ আপ করে নিতে পারেন। Vaseline Lip Therapy Color & Care Chapstick – Strawberry.

ফোটো সৌজন্য: ইনস্টাগ্রাম