সাম্প্রতিক কোভিড অতিমারির প্রকোপে এলোমেলো হয়ে গেছে এতদিন বাঁধা গতে চলতে থাকা জীবন। প্রতিদিনই কিছু না কিছু নতুন সংক্রমণের খবর আসছে, রোগ কবে সম্পূর্ণ নিয়ন্ত্রণে আসবে, এখনও নির্দিষ্ট করে বলা যাচ্ছে না। নতুন স্ট্রেন সমস্যা বাড়িয়েছে আরও। এরকম পরিস্থিতিতে নিজের নিরাপত্তার ব্যাপারটা নিশ্চিত করতে বাধ্য হয়েছেন সকলেই। রেস্তোরাঁ, রেলস্টেশন, সিনেমা হলের মতো জায়গাগুলো বারবার পরিষ্কার করা হচ্ছে, স্যানিটাইজার বিক্রি হচ্ছে হু হু করে! সামান্য হাঁচি কাশির শব্দ পেলেও তটস্থ হয়ে তাকাচ্ছেন আশপাশের মানুষ।

পরিস্থিতির সঙ্গে মানিয়ে নেওয়ার জন্য জীবনধারায় নানা পরিবর্তন আনতে বাধ্য হচ্ছেন মানুষ। ঘন ঘন গরম জলে স্নান করছেন, বন্ধ হয়ে গেছে শুক্রবার রাতের পার্টি। সবার একটাই লক্ষ্য, কোনওমতেই যেন ঠান্ডা না লাগে। প্রভাব পড়েছে দৈনন্দিন পরিচর্যা আর রূপচর্চার রুটিনেও। যেহেতু করোনা ভাইরাস ড্রপলেটের মাধ্যমে সংক্রমিত হয়, তাই যা কিছু শরীরের সংস্পর্শে আসছে তার প্রতিটি ক্ষেত্রেই সাবধান হওয়া দরকার। তাই আপনার রূপচর্চার দৈনিক রুটিন, বিশেষ করে আপনার মেকআপ বক্সটিও পরিষ্কার আর স্যানিটাইজ করা দরকার।

কীভাবে নিজের রূপচর্চার রুটিন স্যানিটাইজ করবেন, সে সম্পর্কে জেনে নিন কিছু টিপস।

 

01. নিয়মিত সাজগোজের সরঞ্জাম পরিষ্কার আর স্যানিটাইজ করে রাখুন

01. নিয়মিত সাজগোজের সরঞ্জাম পরিষ্কার আর স্যানিটাইজ করে রাখুন

ভাইরাস সংক্রমণের ভয় থাক বা না থাক, মেকআপ আর স্কিনকেয়ারের জিনিসপত্র নিয়মিত পরিষ্কার করা দরকার। ইংল্যান্ডের অ্যাস্টন ইউনিভার্সিটির করা একটি সমীক্ষায় দেখা গেছে প্রতি দশটি মেকআপ ব্যাগের মধ্যে ন'টিতেই ই.কোলাই আর স্ট্যাফাইলোকক্কাসের মতো ভাইরাস থাকে। অর্থাৎ আপনার রূপচর্চার জিনিসগুলো কিন্তু আপনার বাড়ির সবচেয়ে নোংরা জিনিসগুলোর অন্যতম!

কাজেই নিয়মিত সাবান আর গরম জল দিয়ে সমস্ত মেকআপ ব্রাশ পরিষ্কার করুন। স্যানিটাইজিং স্প্রে বা ওয়াইপস দিয়ে সব বোতল আর পাউডার বা আইশ্যাডোর কেস পরিষ্কার করতে হবে। প্রতিবার ক্রিম নেওয়ার জন্য পরিষ্কার স্প্যাটুলা ব্যবহার করুন। মেয়াদ শেষ হয়ে যাওয়া কাজল, লিপস্টিক, বাম ফেলে দিন। মুখ, নাক আর চোখে যা যা লাগান, তার প্রতিটির ব্যাপারে বাড়তি সাবধান হতে হবে।

 

02. হাতের কাছে রাখুন স্যানিটাইজার আর হ্যান্ড ওয়াশ

02. হাতের কাছে রাখুন স্যানিটাইজার আর হ্যান্ড ওয়াশ

এতদিনে এই কথাটা আর নতুন করে বলার কিছু নেই, কিন্তু সবসময় হাতের কাছে স্যানিটাইজার আর হ্যান্ড ওয়াশ রাখাটা বাধ্যতামূলক। লাইফবয় টোটাল টেন হ্যান্ড স্যানিটাইজার/ Lifebuoy Total 10 Hand Sanitizer আর হ্যান্ড ওয়াশে 10-ঘণ্টা জীবাণু থেকে সুরক্ষা দেওয়ার ক্ষমতা রয়েছে, পাশাপাশি এতে যে সব উপাদান রয়েছে তা আপনার কোমল ত্বকের পক্ষেও ভালো। এটি ছোট ট্রাভেল সাইজেও পাওয়া যায়, ফলে ব্যাগে সহজেই ঢুকিয়ে নিতে পারবেন।

 

03. ময়শ্চারাইজিং হ্যান্ড ক্রিমের বিকল্প নেই

03. ময়শ্চারাইজিং হ্যান্ড ক্রিমের বিকল্প নেই

অতিমারি ছড়ানোর পর থেকেই জনস্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞেরা পরামর্শ দিচ্ছেন প্রতি মুহূর্তে হাত পরিষ্কার রাখার। ফলে যে কোনও বাইরের জিনিস ধরার পর হাত ধুয়ে নিন। বাইরে থেকে বাড়িতে ঢুকে অবশ্যই হাত ধুতে হবে। এমনকী, মুখে হাত দিতে হলেও আগে হাত ধুয়ে নেওয়া দরকার।

এতবার হাত ধুতে হলে হাতের চামড়া রুক্ষ কর্কশ হয়ে যাওয়া খুব স্বাভাবিক। ময়শ্চারাইজার দেওয়া হ্যান্ড ওয়াশেও হাত রুক্ষ হয়ে যায়। হাতের চামড়া ফেটে গেলে সেখান দিয়েও ভাইরাসের সংক্রমণ ঘটতে পারে। তাই এমন হ্যান্ড ক্রিম মাখুন যা সুরক্ষা আর গভীর আর্দ্রতা, দুইই জোগায়। আমাদের ব্যক্তিগত পরামর্শ শুনলে ভেসলিন ইনটেন্সিভ কেয়ার হেলদি হ্যান্ড স্ট্রংগার নেলস হ্যান্ড ক্রিম/ Vaseline Intensive Care Healthy Hand Stronger Nails Hand Cream মাখুন, হাত ধন্যবাদ জানাবে আপনাকে।

 

04. অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল অ্যান্টিফাঙ্গাল গুণযুক্ত প্রডাক্ট ব্যবহার করুন

04. অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল অ্যান্টিফাঙ্গাল গুণযুক্ত প্রডাক্ট ব্যবহার করুন

প্রত্যেক মেয়েই নিজের প্রয়োজন অনুসারে নিজস্ব স্কিনকেয়ার প্রডাক্ট ব্যবহার করেন। অনেকেই ভালোবাসেন প্রাকৃতিক ও ঘরোয়া উপাদান দিয়ে তৈরি সরঞ্জাম। আপনার পছন্দ যাই হোক না কেন, এই সময়টায় এমন প্রডাক্ট ব্যবহার করুন যাতে অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল আর অ্যান্টিফাঙ্গাল গুণ রয়েছে। কারণ তাতে প্রডাক্ট সহজে দূষিত হয়ে যাবে না। যেমন রোজকার রূপচর্চায় যোগ করতে পারেন এসেনশিয়াল অয়েল। সৌন্দর্য চর্চার রুটিনে সামান্য স্বাস্থ্যকর অদলবদল ঘটিয়েও দূরে রাখা যায় নানা ধরনের সংক্রমণ।

 

05. মেকআপ শেয়ার করবেন না

05. মেকআপ শেয়ার করবেন না

অন্য কারও সঙ্গে নিজের মেকআপ প্রডাক্ট শেয়ার করবেন না। বিশেষ করে যাঁদের নিয়মিত মেকআপ আর্টিস্টের সাহায্য নিয়ে ঘণ্টার পর ঘণ্টা মেকআপ করতে হয়, তাঁরা সাবধান থাকুন। নিজের মেকআপ ব্যবহার করুন, দিনের শেষে তা স্যানিটাইজ করুন। শুনতে ঝামেলার মনে হলেও আপনার সুরক্ষার জন্য এটুকু তো করতেই হবে!