সুস্বাস্থ্য বজায় রাখার একটা গুরুত্বপূর্ণ ধাপ হল বাহুমূল পরিচ্ছন্ন আর রোমমুক্ত রাখা। কিন্তু ব্যাপারটা সেখানেই শেষ নয়। বাহুমূল যাতে কালো হয়ে না যায়, সেটা দেখাও দরকার। কালচে ছোপ পড়া বাহুমূল দেখতে যেমন খারাপ লাগে, তেমনি তা স্বাস্থ্যসম্মতও নয়। বাহুমূল কালো হলে আমরা তা বড় হাতাওলা পোশাকে ঢেকে রাখি। কিন্তু সেটা কোনও সমাধান নয়, বরং উন্মুক্ত বাহুমূলের পোশাক যাতে পরতে পারেন সেই ব্যবস্থাই করা উচিত।

তবে বাহুমূল খুলে রাখার আগে তার কালচেভাবটা দূর করা দরকার যাতে তা আপনার ত্বকের বাকি অংশের রঙের সঙ্গে বেমানান না দেখায়। ক্লিনিকাল ট্রিটমেন্ট করে বগলের কালো ছোপ দূর করা অবশ্যই সম্ভব, তবে একটা ঘরোয়া স্ক্রাবও রয়েছে যা সমান কার্যকর! জেনে নিন একটি ঘরোয়া স্ক্রাবের হদিশ যা আপনার বাহুমূলের রং খুব দ্রুত ফরসা আর উজ্জ্বল করে তুলবে...

 

আপনার দরকার:

আপনার দরকার:

  • এক চাচামচ চিনি
  • দু' চাচামচ নারকেল তেল
  • একটা বাটি

কীভাবে বগলের রং হালকা করার ঘরোয়া স্ক্রাব বানাবেন:

ধাপ 01: বাটিতে চিনি আর অল্প নারকেল তেল মিশিয়ে নিন

ধাপ 02: বগল ভালো করে পরিষ্কার করে নিন যাতে একটুও ঘাম না থাকে

lightening dark underarms diy scrub

ধাপ 03: চিনি আর নারকেল তেলের মিশ্রণটা লাগিয়ে কিছুক্ষণ মাসাজ করুন

ধাপ 04: ধুয়ে ভালো করে মুছে নিন।

এখানেই শেষ নয়! বাহুমূল পরিষ্কার আর মসৃণ রাখার পাশাপাশি তা সুগন্ধি আর তরতাজা রাখাও সমান জরুরি! কারণ বগলে দুর্গন্ধের চেয়ে খারাপ আর কিছুই হতে পারে না! ব্যবহার করুন রেক্সোনা অ্যালো ভেরা আন্ডারআর্ম ওডর প্রোটেকশন রোল অন / Rexona Aloe Vera Underarm Odour Protection Roll On -- এটি একটি হালকা অ্যান্টিপার্সপিরেন্ট যা বাহুমূলের ত্বক শীতল রাখে এবং প্রায় 48 ঘণ্টা দুর্গন্ধ থেকে সুরক্ষিত রাখে!

বিশেষ পরামর্শ: আপনার যদি নিয়মিত বাহুমূলের রোম শেভ করার অভ্যেস থাকে, তা হলে ওয়্যাক্সিং করানোই ভালো। ওয়্যাক্সিং একদম গোড়া থেকে রোম তুলে ফেলে, পাশাপাশি মৃত কোষও সাফ করে দেয়, ফলে বাহুমূল থাকে পরিচ্ছন্ন, ফরসা আর মসৃণ!