শরীর, মন, ত্বক, সব কিছু সুস্থ রাখতেই ব্যায়ামের প্রয়োজনীয়তা আছে। সাধারণত, নিয়মমাফিক ব্যায়ামের অভ্যেস বজায় রাখতে আমরা অনেকেই জিমে যাই। কিন্তু জিম থেকে নানান সংক্রমণ ছড়ানোর ঘটনাও খুব স্বাভাবিক। জিমের ঘামে ভেজা, উষ্ণ পরিবেশ জীবাণু, ব্যাকটেরিয়া আর ভাইরাসের আঁতুড়ঘর। এখন তার জন্য তো আর জিমে যাওয়া বন্ধ করে দেওয়া সম্ভব নয়! তবে ত্বক আর স্বাস্থ্যের ব্যাপারে আপনি কিছু সুরক্ষাব্যবস্থা মেনে চলতেই পারেন, যা আপনাকে অনেক সাধারণ সমস্যা থেকে রক্ষা করবে।

জিমের পরিবেশ নিরাপদ আর স্বাস্থ্যসম্মত রাখতে মেনে চলুন এই 5টি নিয়ম।

 

জিমের সরঞ্জাম ব্যবহার করার আগে ও পরে মুছে নিন

জিমের সরঞ্জাম ব্যবহার করার আগে ও পরে মুছে নিন

ত্বক আর স্বাস্থ্যের ব্যাপারে আগে থেকে সচেতন হওয়াই মঙ্গল! তাই জীবাণু আর ব্যাকটেরিয়া যাতে আপনাকে সংক্রমিত করতে না পারে, তার জন্য জিমের যন্ত্রপাতিতে হাত দেওয়ার আগে তা ভালো করে মুছে নিন। বেশিরভাগ জিমেই যন্ত্রপাতি মোছার জন্য সারফেস ক্লিনার দেওয়া হয়, সেটি কাজে লাগান।

 

জিমের পোশাক রোজ কেচে ফেলুন

জিমের পোশাক রোজ কেচে ফেলুন

ব্যায়াম করার পরে ঘামে ভেজা পোশাক তো ছেড়ে ফেলবেনই, উপরন্তু বাড়ি ফেরার পর সে সব পোশাক সঙ্গে সঙ্গে কাচতে দিয়ে দিন। লাইক্রার মতো স্ট্রেচি ফ্যাব্রিক অনেকক্ষণ ভেজা থাকে, তা থেকে দুর্গন্ধও ছাড়ে। তাই ব্রণ বা ত্বকের অন্য সংক্রমণ এড়াতে জিমের জামা তৎক্ষণাৎ কাচতে দিয়ে দেওয়াই ভালো।

 

ফ্লোর এক্সারসাইজের জন্য নিজস্ব ম্যাট ব্যবহার করুন

ফ্লোর এক্সারসাইজের জন্য নিজস্ব ম্যাট ব্যবহার করুন

যোগব্যায়াম করার অভ্যেস থাকলে অনেকটা সময় এক্সারসাইজ ম্যাটের ওপরেই কাটাতে হয়। ম্যাটে হাত লাগে, মুখ লাগে, ফলে সংক্রমণ হওয়া খুব স্বাভাবিক! কাজেই এক্সারসাইজ ম্যাট যাতে পরিষ্কার আর জীবাণুমুক্ত থাকে, সে বিষয়টি নিশ্চিত করুন। ধুলোময়লা, ব্যাকটেরিয়া আটকাতে বারবার ম্যাট মুছে পরিষ্কার রাখুন।

 

নিজের তোয়ালে ব্যবহার করুন

নিজের তোয়ালে ব্যবহার করুন

উষ্ণ আর আর্দ্র পরিবেশে ব্যাকটেরিয়া খুব সহজে জন্মায় আর বৃদ্ধি পায়। ত্বকে র‍্যাশ বা অন্য সংক্রমণ ঠেকাতে তাই সনা বা স্টিম নেওয়ার সময় নিজস্ব তোয়ালে ব্যবহার করাই ভালো। সনা বেঞ্চ কিন্তু আসলে খুব একটা পরিষ্কার নয়, তাই সাবধান হোন!

 

হাত ধুয়ে ফেলুন ভালো করে

হাত ধুয়ে ফেলুন ভালো করে

ঘাম ঝরিয়ে ব্যায়াম শেষ করার পরেই বাথরুমে ঢুকে হাত ভালো করে সাবান দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। হাত ধোয়ার আগে মুখ বা শরীরের অন্য কোনও অংশ স্পর্শ করবেন না। ব্যায়ামের সময় যে তোয়ালে ব্যবহার করেছেন, সেই তোয়ালে দিয়ে মুখও মুছবেন না। পরিষ্কার, ভালো তোয়ালে ব্যবহার করুন।