মেঘলা দিনে বাড়ির বাইরে দিব্যি বেরিয়ে পড়েছেন সানস্ক্রিন না মেখেই, এমন কতবার হয়েছে বলুন তো? আপনি একা নন। অনেক মেয়েই মনে করেন আকাশ মেঘে ঢাকা থাকলে, রোদের দেখা একদম না মিললে সানস্ক্রিন মাখার দরকার নেই! ঠিক কিনা? উত্তর হল, আজ্ঞে না! একেবারেই ঠিক নয়! সত্যি কথাটা হল, "মেঘলা দিনে সানস্ক্রিন মাখার দরকার নেই"

এই ধারণা সম্পূর্ণ ভুল! কারণ আকাশে সূর্যের দেখা না মিললেও আলট্রা ভায়োলেট রশ্মি ত্বকের ক্ষতি করতে পারে। আলট্রা ভায়োলেট রশ্মি ত্বকে লাগলে তা থেকে ত্বকে অকালে বয়সের ছাপ পড়তে পারে, ত্বক রোদে পুড়ে যেতে পারে, এমনকী ত্বকের ক্যানসারের মতো মারাত্মক রোগও হতে পারে। বিশ্বাস হচ্ছে না? জেনে নিন তিনটি কারণ যার জন্য সবসময়, এমনকী মেঘলা দিনেও সঠিক পরিমাণে এসপিএফ যুক্ত সানস্ক্রিন মাখা দরকার।

 

01. মেঘের আড়াল ইউভি রশ্মিকে রুখতে পারে না

01. মেঘের আড়াল ইউভি রশ্মিকে রুখতে পারে না

গবেষণা বলছে, আলট্রা ভায়োলেট বা অতিবেগুনি রশ্মি ত্বকের ক্যানসারের জন্য দায়ী। মেঘের আস্তরণ যে পরিমাণ আলট্রা ভায়োলেট বা অতিবেগুনি রশ্মি রুখতে পারে তা 25 শতাংশেরও কম। কাজেই আকাশে মেঘের আড়াল আছে মানেই আপনি নিরাপদ, তা কিন্তু মোটেও নয়! মেঘলা দিনে ত্বক শীতল থাকলেও ত্বক প্রচুর পরিমাণে আলট্রা ভায়োলেট এ আর বি শুষে নিতে পারে, আর তার ফল তো আপনি জানেনই...

 

02. রোদজনিত ক্ষতির সঙ্গে তাপমাত্রার কোনও সম্পর্ক নেই

02. রোদজনিত ক্ষতির সঙ্গে তাপমাত্রার কোনও সম্পর্ক নেই

বাইরে আবহাওয়া শীতল হলে মনে হতেই পারে ত্বক আর রোদে পুড়বে না! আবহাওয়া ঠান্ডা মানেই ত্বক পোড়ার আশঙ্কা কম, তাই তো? এই ধারণাও কিন্তু ঠিক নয়। ঠান্ডা বা মেঘলা দিনেও আলট্রা ভায়োলেট রশ্মির পরিমাণ উষ্ণ রোদঝলমলে দিনের সমানই থাকে। মেঘে ঢাকা আকাশেও অতিবেগুনি রশ্মির সূচক চরমে থাকতে পারে এবং তাপমাত্রা কম হলেও ত্বকের একইরকম ক্ষতি করতে পারে।

 

03. জল এবং বালির মধ্যে দিয়েও আলট্রা ভায়োলেট বি রশ্মি প্রতিফলিত হতে পারে

03. জল এবং বালির মধ্যে দিয়েও আলট্রা ভায়োলেট বি রশ্মি প্রতিফলিত হতে পারে

আপনি কি ভাবছেন, মেঘে ঢাকা দিনে সমুদ্রসৈকতে ঘুরে বেড়ানোর সময় অথবা সমুদ্রস্নান করতে হলে সানস্ক্রিন মাখার আর দরকার কী? অথবা প্রচণ্ড বৃষ্টির দিনে ত্বক রোদে পুড়বে না! তা হলে আবারও বলি, আপনার ভাবনা একেবারেই ভুল। মনে করে দেখুন, স্কুলে কী পড়েছিলেন! বৃষ্টির মধ্যে দিয়েও সূর্যালোক প্রতিফলিত হতে পারে। গবেষণা বলছে, 17 শতাংশ আলট্রা ভায়োলেট বি বরফ, জল, ঘাস বা বালির মধ্যে দিয়ে প্রতিফলিত হতে পারে এবং এর ফলে এক্সপোজারের মাত্রা 80 শতাংশ পর্যন্ত বেড়ে যায়। তাই বাইরে বৃষ্টি হলেও ক্ষতিকর রোদ আপনার ত্বকের সর্বনাশ করে দিতে পারে। তাই বারবার সানস্ক্রিন মাখা দরকার। প্রশ্ন হল, কোন সানস্ক্রিন ব্যবহার করবেন? আমাদের পরামর্শ মেনে ল্যাকমে অ্যাবসলিউট পারফেক্ট র‍্যাডিয়েন্স হোয়াইটনিং ইউভি লোশন 50 পিএ++/ Lakme Absolute Perfect Radiance Whitening UV Lotion SPF 50 PA++ ব্যবহার করুন। হালকা, তেলাভাব মুক্তব্রড-স্পেকট্রাম ফর্মুলার সানস্ক্রিন আপনার ত্বককে ইউভিএ আর ইউভিবি, এই দুয়েরই হাত থেকে সুরক্ষিত রাখে এবং মুখে সাদা আস্তরণের মতো ছাপ পড়তেও দেয় না। আর একটা মজার কথা হল: এসপিএফ দেখে বোঝা যায় সানস্ক্রিন কতক্ষণ কাজ করবে? আপনার সানস্ক্রিনের এসপিএফ যদি 50 হয়, তা হলে তার অর্থ আপনাকে 50 মিনিট পরে নতুন করে সানস্ক্রিন মেখে নিতে হবে। কাজেই এসপিএফের সঠিক পরিমাণ নির্ধারণ করাও খুব দরকার। ত্বক বিশেষজ্ঞেরা চাচামচের চারভাগের একভাগ পরিমাণ সানস্ক্রিন নিয়ে মুখে আর গলায় মেখে নিতে বলেন। তাই আর দেরি করছেন কেন - আজও যদি সানস্ক্রিন না মেখে থাকেন, তা হলে এক্ষুনি যান আর সানস্ক্রিন মেখে নিন!