ঝলমলে উজ্জ্বল ত্বকের চাহিদা সবসময়ই! 

প্রতিদিন নিয়ম করে ত্বক পরিচর্যার রুটিন মেনে চললে ত্বকের জেল্লা বাড়ে সন্দেহ নেই। কিন্তু ত্বকের স্বাস্থ্য আর টেক্সচার আরও একটু ভালো করে তুলতে হলে আপনাকে আরও এক ধাপ এগোতে হবে! বুঝতেই পারছেন, আমরা ফেসিয়ালের কথা বলছি!

ত্বক উজ্জীবিত ও ডিটক্স করা থেকে শুরু করে ব্রণ আর ব্ল্যাকহেডস কমানো পর্যন্ত সব কিছুই করতে পারে ফেসিয়াল। এক কথায় ফেসিয়াল হল ত্বকের সম্পূর্ণ যত্ন নেওয়ার একটা উপায় যার অনেকগুলো ধাপ রয়েছে। দেখে নিন নিয়মিত ফেসিয়ালের নানা গুণ এবং ত্বকের যত্নে ফেসিয়ালের ভূমিকা...

 

ব্ল্যাকহেডস আর হোয়াইটহেডসকে বিদায় দিন

ব্ল্যাকহেডস আর হোয়াইটহেডসকে বিদায় দিন

মুখের তেলময়লা আর মৃত কোষ যখন রোমছিদ্রে জমে যায়, তখনই দেখা দেয় ব্ল্যাকহেডস আর হোয়াইটহেডসের উৎপাত। খুব বড় সমস্যা না হলেও ব্ল্যাকহেডস আর হোয়াইটহেডস হলে দেখতে ভালো লাগে না, ত্বকের মসৃণ ব্যাপারটাও নষ্ট হয়ে যায়! আর একটা বাজে ব্যাপার হল, ব্ল্যাকহেডস বা হোয়াইটহেডস খুঁটে তুলে দিলেও আবার দু' তিনটে বেরিয়ে যায়। এই জন্যই নিয়মিত ফেসিয়াল করা দরকার। এক্সট্র্যাকশন টুল দিয়ে নাক আর চিবুকের ব্ল্যাকহেডস আর হোয়াইটহেডসের হাত থেকে সহজেই মুক্তি পাওয়া যায়, ত্বকে আঘাতও লাগে না।

 

কমিয়ে ফেলুন বয়সের দাগ

কমিয়ে ফেলুন বয়সের দাগ

বয়স বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে ত্বকে কোলাজেন তৈরির পরিমাণ কমে যায় এবং ত্বক তার নমনীয়তা হারিয়ে ফেলে। কোলাজেনের পরিমাণ বাড়িয়ে ত্বক টানটান করে তুলতে সেরা ট্রিটমেন্ট হল ফেসিয়াল। ফেসিয়াল ট্রিটমেন্টে নানান গাছগাছড়ার ভেষজ গুণে সমৃদ্ধ ফেসিয়াল পিল, ফেসিয়াল প্যাক, ক্রিম আর লোশন ব্যবহার করা হয়, যা ধীরে ধীরে বয়সের দাগছোপ কমিয়ে আনে আর আপনার ত্বকে ফিরে আসে স্বাস্থ্য আর তারুণ্যের দীপ্তি।

 

ডার্ক সার্কল আর বলিরেখা থেকে মুক্তি

ডার্ক সার্কল আর বলিরেখা থেকে মুক্তি

চোখের চারপাশের ত্বক সবচেয়ে পাতলা আর সংবেদনশীল, স্বাভাবিকভাবেই এই অংশের ত্বকের দরকার বাড়তি যত্ন। ঠিকমতো যত্ন না নিলে চোখের কোলে কালি পড়তে পারে, চোখের কোল ফুলে যেতে পারে, এমনকী কাকের পায়ের ছাপের মতো বলিরেখাও দেখা দিতে পারে চোখের কোণে। চোখের চারপাশের ডার্ক সার্কল আর বলিরেখা কমানোর সেরা উপায় হল ফেসিয়াল। ফেসিয়াল করার সময় যে আই ক্রিম ব্যবহার করা হয় তা অ্যান্টি-এজিং গুণে ভরপুর এবং এই ক্রিম চোখের চারপাশের সংবেদনশীল কোমল ত্বকের যত্ন নেয়। তা ছাড়া ফেসিয়ালের সময় শসার চাকা দিয়ে ঢেকে দেওয়া হয়, শসা ক্লান্ত চোখকে ফের উজ্জীবিত করে তোলে এবং ডার্ক সার্কল আর বলিরেখাও কমিয়ে দিতে পারে।

 

উজ্জ্বল করে তুলুন গায়ের রং

উজ্জ্বল করে তুলুন গায়ের রং

আজকাল বেশিরভাগ মেয়েই কালো দাগছোপ, পিগমেন্টেশনের সমস্যায় ভোগেন। বেশি রোদ লাগা, দূষণ আর সেই সঙ্গে বয়স বৃদ্ধি, হরমোনের পরিবর্তনের মতো নানা কারণে ত্বকে মেলানিন উৎপাদন বেশি হতে থাকে এবং তা থেকে ত্বকে কালো দাগ তৈরি হয়। নিয়মিত ফেসিয়াল করলে এ সব কালো ছোপ ধীরে ধীরে ফিকে হয়ে আসে আর আপনি পেয়ে যান উজ্জ্বল গায়ের রং।

 

বন্ধ রোমছিদ্র খুলে দিন

বন্ধ রোমছিদ্র খুলে দিন

প্রতিদিন আমাদের ত্বককে প্রচুর ঝক্কি পোয়াতে হয়। গরম, ঘাম, দূষণ, তেলময়লা, মেকআপ মুখের রোমছিদ্রে জমতে থাকে এবং দিনের শেষে রোমছিদ্র বন্ধ হয়ে যায়। ফেসিয়াল করলে কিন্তু এ সমস্যা থেকে সহজেই মুক্তি পাওয়া সম্ভব। ফেসিয়ালের সময় মুখে যে স্টিম দেওয়া হয়,  তাতে রোমছিদ্রগুলো খুলে যায়, ফলে ব্রণ বা অ্যাকনে সহ ত্বকের অন্য সমস্যাগুলোও থাকে না।


নিয়মিত ফেসিয়াল করতে ঢুঁ মারুন ল্যাকমে সালোন-এ আর আপনার ত্বককে উপহার দিন আর্দ্রতায় ভরা সতেজতা।