কোঁকড়া চুল নিয়ে খুব স্বস্তিতে থাকেন এমন মেয়ের সংখ্যা খুব একটা বেশি নয়। এমনকী বলিউডেও নয়! বলিউডের নায়িকারা হয় নিজেদের চুল স্ট্রেট রাখতে পছন্দ করেন, অথবা হালকা ওয়েভ দিয়ে ছেড়ে দেন; তাতে চুলটা ঝটপট একটা পরিচ্ছন্ন খোঁপা বা পনিটেলে বেঁধে নিতেও সুবিধে হয়। অন্যদিকে কোঁকড়া চুল সামলানো মুশকিল, আবার নানাধরনের পোশাকের সঙ্গে স্টাইল করাও সহজ নয়। কোঁকড়া চুল থাকলে তা সামলানোর জন্য একটা ডোন্ট কেয়ার মানসিকতা থাকতে হয়, এবং দরকারে এলোমেলো ঝাঁকড়া হয়ে থাকা চুল নিয়ে বেরিয়ে পড়ার মানসিক প্রস্তুতিও লাগে। ফলে স্বাভাবিক কোঁকড়া চুলের পোস্টার গার্ল হয়ে উঠেছেন কঙ্গনা রানাওয়াত বা তাপসী পান্নুর মতো নায়িকারা, যাঁরা পরদায় তো বটেই, পরদার বাইরেও সাহসী বলে পরিচিত।

তাই স্বাভাবিকভাবেই কোঁকড়া চুলের মালকিন মেয়েরা চুলের নানান স্টাইল আর টিপসের জন্য ভরসা করেন কঙ্গনা বা তাপসীর ওপর। তাপসীর এলোমেলো খেজুরছড়ি বিনুনি অনেকেই ট্রাই করে দেখেছেন বা দেখতে চান। অন্যদিকে কঙ্গনা তাঁর চুল খুব সাধারণভাবেই স্টাইল করেন, কিন্তু তার মধ্যেই থাকে ছোট্ট ডিটেলিং যা তাঁর সৌন্দর্য নিমেষেই আরও বাড়িয়ে দেয়।

হাতে সময় না থাকলে পার্লারে গিয়ে কোঁকড়া চুল সেট করা মুশকিল। ফলে কিছু টিপস জানা থাকলে নিঃসন্দেহে সুবিধেই হবে! কাজেই আমরা সাজিয়ে দিলাম কঙ্গনার 5টি হেয়ারস্টাইল, যা খুব সহজেই করে ফেলা যায়, দেখতেও দারুণ গ্ল্যামারাস লাগে!

 

01. ন্যাচারালি টিজড

01. ন্যাচারালি টিজড

চিরুনি বা হেয়ার ব্রাশ কোঁকড়া চুলের যতটা বন্ধু, ঠিক ততটাই শত্রু! চুল কতটা ভেজা অবস্থায় আপনি আঁচড়াচ্ছেন তার ওপর নির্ভর করবে আপনার চুল ঠিক কেমন থাকবে। কোঁকড়া চুল খোলা হাওয়ায় শুকিয়ে যাওয়ার পর স্বাভাবিক টেক্সচারে যখন ফিরবে, তাকে সেই অবস্থাতেই থাকতে দেওয়া ভালো। কঙ্গনার চুলের কার্ল যে ধরনের তাকে 3B বলা হয়। স্প্রিংয়ের মতো ছোট ছোট রিংলেট দেওয়া এই চুল ঠিকমতো স্ক্রাঞ্চ না করলে খুব রুক্ষ হয়ে যেতে পারে। ধারে সিঁথি, কপালের কাছে হালকা টিজ করা এই সহজ লুকটি এই ধরনের কোঁকড়া চুলের ক্ষেত্রে দারুণ মানানসই। যেমন স্টাইলিশ, তেমনি মজাদার!

বিবি-র পছন্দ: টিজি বেড হেড অন দ্য রিবাউন্ড কার্ল রিকল ক্রিম

 

02. বলিউড রেট্রো

02. বলিউড রেট্রো

একটা মজাদার তথ্য জেনে রাখুন: পছন্দসই শাড়ি আর পোশাকের খোঁজে কঙ্গনা প্রায়ই অলিগলি বা স্থানীয় বাজারে ঘুরে বেড়ান। একবার কলকাতা বিমানবন্দরে তিনি একটা সাধারণ সুতির শাড়ির সঙ্গে খুব সহজেই শ্যুভন্সি কোট পরে ফেলেছিলেন! কঙ্গনা শাড়ি পরতে ভালোবাসেন আর তার সঙ্গে চুলের স্টাইল এমনভাবে করেন যাতে একটা পুরনো দিনের ছোঁয়া পাওয়া যায়। রেট্রো লুকে দারুণ দেখায় কঙ্গনাকে আর মুখের দু'পাশে ছড়িয়ে রাখা আলগা ঝুরো চুলের কারণে তৈরি হয় একটা দারুণ মায়া!

 

03. মসৃণ ওয়েভ

03. মসৃণ ওয়েভ

ঝাঁকড়া এলোমেলো কার্ল কঙ্গনার যতটা পছন্দ, মাঝেমাঝে ওয়েভ করতেও তিনি ততটাই ভালোবাসেন। চুল অতিরিক্ত ফাঁপানো দেখাতে না চাইলে ট্রাই করতে পারেন এই লুকটি। মাথার একপাশে টুইস্টেড বিনুনি আর ধারে সিঁথি, অন্যদিকে মসৃণ ওয়েভ করা চুল দারুণ রোমান্টিক দেখায়!

 

04. ক্যাসুয়াল বাঞ্চ

04. ক্যাসুয়াল বাঞ্চ

কঙ্গনা কখনওই খুব একটা পুরুষালি সাজে বিশ্বাসী নন, বরং সে ব্যাপারটা সোনম কাপুরের মধ্যে অনেক বেশি। কঙ্গনার পোশাক সবসময়ই ফিটিং এবং তার সঙ্গে সবসময় স্মার্ট হেয়ারস্টাইল করেই অভ্যস্ত তিনি। এরকম হেয়ারস্টাইল করে ফেলতে পারেন আপনিও। সিঁথি করার দরকার নেই, চুল গোছা করে নিচু পনিটেলে বেঁধে রাখুন, আপনার হেয়ারস্টাইল রেডি!

 

5. ক্লাসিক টপনট

5. ক্লাসিক টপনট

যে সব মেয়ের কোঁকড়া চুল, তাঁরা সকলেই চুল মাথার ওপরে চুড়ো করেই বেঁধে রাখেন। এই ক্লাসিক টপনট কখনও পুরনো হওয়ার নয়! রোজকার হেয়ারস্টাইল হিসেবেও টপনট মানানসই। চুলের যত্ন নিতে খানিকটা লিভ-ইন কন্ডিশনার লাগিয়ে নিন। বিশেষ টিপ: চুল পরিচ্ছন্ন আর সুন্দর দেখাতে চিরুনিতে খানিকটা হেয়ারস্প্রে লাগিয়ে চুলে বুলিয়ে নিন!