ভরা পৌষ মাস চলছে, মাঘ পড়তে না পড়তেই শুরু হয়ে যাবে বিয়ের মরশুম। আগামী বছর যাঁদের বিয়ে করার কথা, তাঁদের পোশাক, গয়না, বিয়েবাড়ি বুকিংয়ের মতো যাবতীয় তোড়জোড় এর মধ্যেই সব হয়ে যাওয়ার কথা! এবার হাতে মাসখানেক হাতে সময় রয়েছে, এই সময়টা কাজে লাগান। স্বাস্থ্যকর খাবার খান আর সেই সঙ্গে মেনে চলুন সঠিক ত্বক আর চুল পরিচর্যার রুটিন। ঠিকঠাক মেনে চললে বিয়ের দিন ঝলমলিয়ে উঠবেন আপনি।

চুলের পরিচর্যার দিকে প্রথমে নজর দেওয়া যাক। আপনার জন্য আমরা নিয়ে এসেছি কিছু বাছাই করা হেয়ার কেয়ার টিপস যা বিয়ের আগে আপনার চুলের সম্পূর্ণ দেখভাল করবে।

 

ডিপ কন্ডিশনিং ট্রিটমেন্ট

ডিপ কন্ডিশনিং ট্রিটমেন্ট

চুলের ডিপ কন্ডিশনিং ট্রিটমেন্ট মানেই যে দামি সালোনে একগাদা খরচ করে স্পা করতে হবে তা নয়। বাড়িতেও করে নিতে পারেন ডিপ কন্ডিশনিং ট্রিটমেন্ট। আর সত্যি বলতে রান্নাঘরের কিছু সাধারণ উপকরণ দিয়েই করে নিতে পারেন ডিপ কন্ডিশনিং ট্রিটমেন্ট। বাড়িতে কলা, অ্যাভোকাডো, অলিভ অয়েলের মতো কিছু সামগ্রী থাকলেই যথেষ্ট! আর যদি ঘরোয়া কন্ডিশনিং মাস্ক তৈরি করার সময় না থাকে, তা হলে ট্রেসমে কেরাটিন স্মুদ ডিপ স্মুদিং মাস্ক/Tresemme Keratin Smooth Deep Smoothing Mask ব্যবহার করে দেখুন। এতে কেরাটিন আর মারুলা অয়েল রয়েছে। এই দুটি উপাদানই চুলের রুক্ষতা নিয়ন্ত্রণ করে, শুকনো প্রাণহীন চুলে আর্দ্রতা জোগায়।

 

বেশি শ্যাম্পু করবেন না

বেশি শ্যাম্পু করবেন না

স্ক্যাল্পের স্বাস্থ্য বজায় রাখা জরুরি, তবে তার জন্য চুলে ঘন ঘন শ্যাম্পু করবেন না। সপ্তাহে দু'বার শ্যাম্পু করলেই যথেষ্ট। চুল তেলতেলে লাগলে ড্রাই শ্যাম্পু স্প্রে করে তেলাভাব কাটিয়ে ফেলুন। টিজি বেড হেড ওহ বি হাইভ ম্যাট ড্রাই শ্যাম্পু/ TIGI Bed Head Oh Bee Hive Matte Dry Shampoo চুলের তেলাভাব কাটাতে খুব ভালো কাজ করে, সঙ্গে চুলে ভল্যুমও জোগায়। বিয়ের আগের অনুষ্ঠানগুলোয় চুলের স্টাইলিং করার সময়ও হাতের কাছে রাখুন ড্রাই শ্যাম্পু।

 

নিয়মিত চুলে তেল মাখুন

নিয়মিত চুলে তেল মাখুন

চুলে তেল মাখাটা সাধারণত ভারতীয় সংস্কৃতির অঙ্গ। চুল বা স্ক্যাল্পের জন্য তেল খুব উপকারী, সঙ্গে নিয়মিত মাসাজে মনটাও হালকা থাকে। তেলে কিছু বাড়তি প্রাকৃতিক উপাদান মেশালে চুল ঘন আর ঝলমলে হবে। এসেনশিয়াল অয়েল, নিম, মেথি, মধুর মতো উপাদান মিশিয়ে চুলে অয়েল ট্রিটমেন্ট করতে পারেন। আর এত কিছু করতে ইচ্ছে না করলে ব্যবহার করুন লিভার আয়ুশ আয়ুর্বেদিক ভৃঙ্গরাজ হেয়ার অয়েল/ Lever Ayush Ayurvedic Bhringaraj Hair Oil। আমলা, ভৃঙ্গরাজ আর তিসির তেলে সমৃদ্ধ এই তেল চুলের গোড়া মজবুত করে, চুলে পুষ্টি জোগায়, আর চুলের বাড়বৃদ্ধি ঘটায়।

 

নিয়মিত চুলের ডগা ছেঁটে রাখুন

নিয়মিত চুলের ডগা ছেঁটে রাখুন

আপনার চুল পাতলা বা ছোট হলেও নিয়মিত ডগা ছেঁটে ফেলা জরুরি, তাতে ডগা ফাটা চুলের হাত থেকে নিস্তার পাওয়া যায়। চুল স্বাস্থ্যসতেজ রাখতে প্রতি চার থেকে ছ' সপ্তাহ অন্তর চুলের ডগা ছেঁটে রাখুন। তাতে চুল লম্বা হবে চটপট, চুল ভেঙে ঝরে যাওয়াও কমবে অনেকটাই।

 

এমন খাবার খান যা চুল ঝলমলে রাখে

এমন খাবার খান যা চুল ঝলমলে রাখে

বাইরে থেকে চুলের যত্ন করার পাশাপাশি ভেতর থেকে পরিচর্যারও প্রয়োজন আছে। এমন খাবার খান যা আপনার চুলের স্বাস্থ্য রক্ষা করবে। প্রোটিন, বায়োটিন, প্রয়োজনীয় ফ্যাটি অ্যাসিড, এ সবই চুলের বৃদ্ধি আর চকচকেভাব ধরে রাখার জন্য দরকার। ডিম, মাছ, বাদাম, সবুজ শাকসবজি আপনার চুলের বিবর্ণভাব কমিয়ে বাড়তি চমক এনে দেবে। চুল, ত্বক আর নখের স্বাস্থ্য ভালো করতে বায়োটিন, ফলিক অ্যাসিড, ওমেগা থ্রি, সিক্স, নাইন এবং অ্যামাইনো অ্যাসিডের সাপ্লিমেন্ট খেতে পারেন।

মূল ফোটো সৌজন্য: @ritikahairstylist