সৌন্দর্যের জগতে এমন কিছু অভিনব উপাদান রয়েছে যা আমাদের মসৃণ উজ্জ্বল ত্বকের স্বপ্নকে বাস্তব করে তোলে। এমনই একটি মাল্টিটাস্কিং স্কিনকেয়ার উপাদান হল নিয়াসিনামাইড, যা এই মুহূর্তে জনপ্রিয়তার শীর্ষে এবং তার যথেষ্ট কারণও আছে। যদি ভেবে থাকেন কেন, তা হলে জেনে নিন নিয়াসিনামাইডের ক্ষমতা। নিয়াসিনামাইড হল ভিটামিন বি3-এর একটি প্রকার, আপনার ত্বকের স্বাস্থ্য বজায় রাখতে এটি অন্যতম মূল পুষ্টি উপাদান।

শক্তিশালী এই উপাদানটি প্রতিটি ত্বকের ধরনের সঙ্গে মানানসই। ত্বক উজ্জ্বল করা, কোলাজেন উৎপাদন বাড়িয়ে তোলা এবং ত্বকের আর্দ্রতা ধরে রাখতে শক্তপোক্ত লিপিডের আস্তরণ গড়ে তোলার মতো একাধিক কাজ করে নিয়াসিনামাইড। আপনার যদি বারবার ব্রণ বেরোনো, অকালে মুখে বয়সের ছাপ পড়া, নিষ্প্রাণ ত্বকের মতো সমস্যা থেকে থাকে, তা হলে তার চিকিৎসা নিয়াসিনামাইড দিয়েই সম্ভব। এখানে আমরা উজ্জ্বল ও জেল্লাদার ত্বকের জন্য নিয়াসিনামাইডের পাঁচটি উপকারিতার কথা আলোচনা করছি...

উজ্জ্বল ত্বকের জন্য নিয়াসিনামাইডের উপকারিতা

 

01. ত্বক উজ্জ্বল করে

01. ত্বক উজ্জ্বল করে

ত্বকের যত্নের ক্ষেত্রে নিয়াসিনামাইড একসঙ্গে অনেক কাজ করে, তবে ত্বক উজ্জ্বল করে তোলার ক্ষেত্রে তার বিশেষ ভূমিকা রয়েছে। অ্যান্টিঅক্সিডান্টে ভরপুর নিয়াসিনামাইড ত্বককে ফ্রি র‍্যাডিকালস এবং পরিবেশগত অন্যান্য ক্ষতির হাত থেকে রক্ষা করে এবং ত্বকে বিবর্ণভাব রুখে দিয়ে ত্বক রাখে উজ্জ্বল জেল্লাদার। এর চেয়ে বেশি আর কী চাই? বিবি-র পছন্দ: ল্যাকমে অ্যাবসলিউট পারফেক্ট র‍্যাডিয়েন্স ব্রাইটেনিং ফেসিয়াল ফোম/ Lakmé Absolute Perfect Radiance Brightening Facial Foam

 

02. তেলাভাব নিয়ন্ত্রণ করে

02. তেলাভাব নিয়ন্ত্রণ করে

নিয়াসিনামাইডের সবচেয়ে উল্লেখযোগ্য উপকারিতা হল ত্বকে সেবাম উৎপাদন নিয়ন্ত্রণের ক্ষমতা। বাড়তি সেবাম আর ত্বকে জমে থাকা তেল রোমছিদ্র বন্ধ করে দেয়, ফলে ত্বক চকচকে দেখায়, ঘনঘন ব্রণ বেরোতে থাকে। নিয়াসিনামাইডের মতো উপাদান এই সমস্যা কমায়। এটি আপনার ত্বক রাখে ব্রণমুক্ত আর মুখ থাকে ঝকঝকে পরিষ্কার! বিবি-র পছন্দ: ল্যাকমে অ্যাবসলিউট পারফেক্ট র‍্যাডিয়েন্স মিনারেল ক্লে মাস্ক/ Lakmé Absolute Perfect Radiance Mineral Clay Mask

 

03. অকালে বয়সের দাগ রুখে দেয়

03. অকালে বয়সের দাগ রুখে দেয়

নিয়াসিনামাইড ত্বকে অকালে বয়সের ছাপ পড়তে দেয় না, এবং সক্রিয়ভাবে কাজ করে নানা উপায়ে ত্বক সজীব রাখে। নিয়াসিনামাইডের অ্যান্টিঅক্সিডান্ট ত্বকে ফ্রি র‍্যাডিক্যাল জনিত ক্ষতি আটকায় এবং কোলাজেন ফাইবারের প্রোটিন গ্লাইকেশন হতে দেয় না। প্রোটিন গ্লাইকেশন হলে ত্বকের কোলাজেন শক্ত হয়ে যায়। তাই কোলাজেনের মাত্রা উন্নত করতে এবং অকালে বলিরেখা, সূক্ষ্মরেখা আর ত্বক ঝুলে যাওয়া থেকে মুক্তি পেতে ভরসা রাখুন নিয়াসিনামাইডের ওপর। সানস্ক্রিনের সঙ্গে যৌথভাবে এই উপাদানটি ক্ষতিকর অতিবেগুনি রশ্মি থেকেও সুরক্ষা জোগায়। বিবি-র পছন্দ: ল্যাকমে অ্যাবসলিউট পারফেক্ট র‍্যাডিয়েন্স স্কিন ব্রাইটেনিং ফেস সিরাম/ Lakmé Absolute Perfect Radiance Skin Brightening Face Serum

 

04. ত্বকের রং মসৃণ সমান করে

04. ত্বকের রং মসৃণ সমান করে

নিয়াসিনামাইড যেহেতু ত্বকের সেবাম উৎপাদন নিয়ন্ত্রণে রাখে, তাই এটি সরাসরি বড় হয়ে যাওয়া রোমছিদ্র সংকুচিত করে ত্বকে মসৃণভাব এনে দেয়। পাশাপাশি এটি এনজাইম আর পিগমেন্টকে ত্বকের ওপরে জমতে দেয় না, ফলে ত্বকে অবাঞ্ছিত পিগমেন্টেশন আর কালো দাগ পড়ে না। আর আগে থেকে যে সব দাগ আছে, নিয়াসিনামাইড তা হালকা করে দেয়, ফলে ত্বক হয়ে ওঠে মসৃণ আর উজ্জ্বল। বিবি-র পছন্দ: ল্যাকমে অ্যাবসলিউট পারফেক্ট র‍্যাডিয়েন্স স্কিন ব্রাইটেনিং ডে ক্রিম/ Lakmé Absolute Perfect Radiance Skin Brightening Day Crème

 

05. ত্বকের প্রদাহ কমায়

05. ত্বকের প্রদাহ কমায়

যে কোনও ত্বকেই প্রদাহ বা জ্বালাভাব হতে পারে, আর সেই সমস্যা সহজেই কমিয়ে দেয় নিয়াসিনামাইড। ভিটামিন বি3-এর এই প্রকারটি জ্বালা, লালচেভাব আর প্রদাহের কারণে বেরোনো ব্রণ কমানোর ব্যাপারে বিশেষ কার্যকর। ত্বকের লিপিড বেরিয়ার জোরদার করে এটি আর্দ্রতা ধরে রাখে, ফলে ত্বক থাকে শীতল আর স্নিগ্ধ। সব মিলিয়ে সেনসিটিভ বা স্পর্শকাতর ত্বকের জন্য নিয়াসিনামাইড খুবই কার্যকর স্কিনকেয়ার উপাদান। বিবি-র পছন্দ: ল্যাকমে অ্যাবসলিউট পারফেক্ট র‍্যাডিয়েন্স স্কিন ব্রাইটেনিং নাইট ক্রিম/ Lakmé Absolute Perfect Radiance Skin Brightening Night Creme

 

নিয়াসিনামাইড সম্পর্কে কিছু প্রশ্ন ও উত্তর:

নিয়াসিনামাইড সম্পর্কে কিছু প্রশ্ন ও উত্তর:

01. নিয়াসিনামাইড কি রোজ ব্যবহার করা যায়?

হ্যাঁ, রোজ নিয়াসিনামাইড ব্যবহার করলে আপনি দ্রুত উজ্জ্বল আর টানটান ত্বক পাবেন। সিরাম ও ডে ক্রিম আকারে সহজেই নিয়াসিনামাইড পাওয়া যায়। এটি অ্যান্টিঅক্সিডান্টে সমৃদ্ধ এবং রোদ, দূষণ আর রাসায়নিকের মতো দৈনন্দিন পরিবেশগত কারণে ত্বকে ফ্রি র‍্যাডিকালসের ক্ষতি হতে দেয় না

02. নিয়াসিনামাইড কি সবধরনের ত্বকের উপযোগী?

হ্যাঁ, নিয়াসিনামাইড সবধরনের ত্বকের উপযোগী। এটি সেবাম উৎপাদন নিয়ন্ত্রণ করে এবং তেলতেলে ত্বকে ব্রণর উৎপাত কমায়। পাশাপাশি এটি ত্বকের লিপিড বেরিয়ার উন্নত করে তোলে, শুষ্ক আর স্পর্শকাতর ত্বকের প্রদাহ আর লালচেভাব কমায়, এবং ত্বকে এনে দেয় স্বাস্থ্যবান আর্দ্রতায় পরিপূর্ণ জৌলুস।

03. নিয়াসিনামাইড কি ত্বক উজ্জ্বল করে তোলে?

হ্যাঁ, নিয়াসিনামাইডের মধ্যে ত্বক উজ্জ্বল করে তোলার গুণ রয়েছে। যে সব এনজাইম ত্বকের কোষে ঢুকে পিগমেন্টেশন তৈরি করে, নিয়াসিনামাইড সে সব এনজাইম রুখে দেয়, ফলে কালো দাগছোপ দূরে থাকে আর ত্বক হয়ে ওঠে উজ্জ্বল ঝকঝকে।