আসুন, সত্যিটা গোড়াতেই স্বীকার করে নিই! তেলতেলে ত্বকের ঠিকঠাক দেখভাল করতে হলে তার পেছনে সারা দিনের প্রায় পুরো সময়টাই দিয়ে দিতে হয়! যেহেতু তেলতেলে ত্বক একটুতেই মলিন হয়ে যায়, তাই সঠিক ত্বক পরিচর্যার রুটিন খুঁজে পাওয়া বেশ সমস্যার হতে পারে। এমনকী বর্ষার দিনেও চটচটে গরম আর সারাক্ষণের আর্দ্রতার কারণে তৈলাক্ত ত্বক সামাল দেওয়া আরও কঠিন হয়ে পড়ে। তবে এই সমস্যা থেকে উদ্ধার পাওয়ার রাস্তা খুঁজে পেয়েছি আমরা। চোখ বুলিয়ে নিন কিছু সেরা বিউটি টিপসে যাতে বৃষ্টির দিনেও তৈলাক্ত ত্বক নিয়ে একেবারে নিশ্চিন্ত থাকতে পারেন আপনি!
 

সঠিক ত্বক পরিচর্যার রুটিন বেছে নিন

সঠিক ত্বক পরিচর্যার রুটিন বেছে নিন

তেলতেলে ত্বক হলে সঠিক ত্বক পরিচর্যার রুটিন মেনে চলা খুব জরুরি। মুখ ভালো করে পরিষ্কার করার পর ল্যাকমে অ্যাবসলিউট পোর ফিক্স টোনার / Lakmé Absolute Pore Fix Toner দিয়ে মুখ টোন করতে ভুলবেন না। এই টোনারের অ্যালকোহলহীন এবং উইচ হ্যাজেলের নির্যাস সমৃদ্ধ ফরমুলা মুখের রোমছিদ্রগুলো সংকুচিত করে বাড়তি সেবাম উৎপাদন রুখে দেবে। ত্বকের আর্দ্রতার জন্য বেছে নিন কোনও ওয়াটার-বেসড প্রডাক্ট যা ত্বকে পুষ্টি সঞ্চার করলেও চটচটে করে দেবে না। আমাদের পরামর্শ শুনলে ব্যবহার করুন ল্যাকমে অ্যাবসলিউট স্কিন গ্লস জেল ক্রিম / Lakmé Absolute Skin Gloss Gel Crème। নানান খনিজ পদার্থে ভরপুর হিমবাহের জল দিয়ে তৈরি হয়েছে এই ক্রিম। এটি কোমলভাবে মুখে আর্দ্রতা ছড়িয়ে দেয় এবং দিনভর মুখ থাকে কোমল আর তরতাজা।

সমস্যা এড়াতে ব্লটিং পেপার

দুপুরের দিকে ত্বক তেলতেলে হয়ে যায়? সাহায্য নিন ব্লটিং পেপারের। মুখে মেকআপ থাক বা না থাক, ব্লটিং পেপার চেপে ধরুন গালে, কপালে, নাকে আর চিবুকে। নিমেষে তেলাভাব শুষে গিয়ে ত্বক হয়ে উঠবে নিখুঁত ম্যাট।

 

শরীরের কথা ভুলবেন না

শরীরের কথা ভুলবেন না

শুধু আপনার মুখই তেলতেলে হয় না, আপনার গোটা শরীরের ত্বকও তৈলাক্ত হয়ে পড়তে পারে। ত্বক যদি খুব শুষ্ক হয়, তা হলে শরীর সেই শুষ্কতা পূরণের জন্য বেশি বেশি করে সেবাম উৎপাদন করতে থাকে। মুখ বাদে বাকি শরীরের তেলাভাব কমাতে ময়শ্চারাইজার মাখতে ভুলবেন না, বর্ষাকালেও ময়শ্চারাইজার মাখা দরকার। বেছে নিন ভেসলিন ইনটেনসিভ কেয়ার অ্যালো সুদ বডি লোশন / Vaseline Intensive Care Aloe Soothe Body Lotion। এটির স্ট্র্যাটিস থ্রি মাল্টি-লেয়ার ময়শ্চার ত্বকের একদম গভীরে প্রবেশ করে ত্বক রাখে আর্দ্রতায় ভরপুর আর খাঁটি অ্যালো ভেরার নির্যাস সারা শরীরকে রাখে স্নিগ্ধ আর মোলায়েম!

ব্যাগের মহিমা

মানে টি ব্যাগের কথা বলছি! গ্রিন বা ব্ল্যাক টি খাওয়া হয়ে গেলে টি ব্যাগটা ছুড়ে ডাস্টবিনে ফেলে দেবেন না! বরং মুখের সবচেয়ে তেলা অংশগুলোয় সেটি চেপে চেপে লাগান। এক একটি অংশে 20 মিনিট করে রাখুন, তারপর পরের অংশে যান। চায়ে যেহেতু ট্যানিন থাকে, তা রোমছিদ্র সংকুচিত করে এবং সেবাম উৎপাদন নিয়ন্ত্রণে রাখে। তেলা ত্বকের সমস্যার মোকাবিলায় এটি একটি প্রাকৃতিক উপায়।

 

মেকআপ রাখুন হালকা

মেকআপ রাখুন হালকা

তেলতেলে ত্বকে মেকআপ করার সময় এমন কিছু বেছে নিন যা হালকা এবং ত্বক আরও চটচটে করে দেবে না। বেছে নিন পন্ড'স হোয়াইট বিউটি বিবি+ ফেয়ারনেস ক্রিম / Pond’s White Beauty BB+ Fairness Cream। এটির জেনহোয়াইট কভার ফরমুলা ত্বকের উপর একটি প্রাকৃতিক কাভারেজ তৈরি করে আর মুখ রাখে আর্দ্র। মুখে দাগছোপ থাকলে তা হালকা করার জন্য এটি গভীর থেকে কাজ করে এবং মুখ করে তোলে জেল্লাদার। স্বাভাবিক সৌন্দর্য পেতে হলে এর জুড়ি মেলা ভার!

ভরসা রাখুন ঘরোয়া টোটকায়

তেলতেলে ত্বকের ক্ষেত্রেও ঘরোয়া টোটকার চেয়ে ভালো কিছু নেই! মুখের তেলাভাব কমাতে বানিয়ে নিন ফেস মাস্ক। তিন টেবিলচামচ মিহি করে গুঁড়ো করা কমলালেবুর খোসা আর তিন চাচামচ গোলাপজল একসঙ্গে মিশিয়ে নিন। এবার এই মিশ্রণটি মুখে আর গলায় ভালোভাবে লাগিয়ে নিন। 30 মিনিট রেখে হালকা গরম জলে ধুয়ে ফেলুন। কমলালেবুর খোসা ত্বকের তেলতেলেভাব শুষে নেয় আর গোলাপজল ত্বক শীতল রাখে। ফলে আপনার ত্বকও থাকে তেলহীন তরতাজা!