সময়ের সঙ্গে সঙ্গে আপনার ত্বকের কোনও পরিবর্তন ঘটেছে কিনা খেয়াল করে দেখেছেন কি? ত্বক কি শুষ্ক আর খসখসে থেকে তেলতেলে হয়ে যাচ্ছে, আর যখন তখন অ্যাকনে হচ্ছে? এমনটা কি স্থায়ী পরিবর্তন, নাকি সময়ের সঙ্গে সঙ্গে আবার ঠিকঠাক হয়ে ত্বক  আগের মতোই হয়ে যায়? এ সব কিছুই চিন্তাভাবনা করার বিষয়।

হ্যাঁ, আপনার ত্বকের ধরনটি বংশগত এবং এটি আপনার জন্মসূত্রে পাওয়া। কিন্তু হরমোন সংক্রান্ত পরিবর্তন, আবহাওয়ার পরিবর্তন অথবা নিছক জীবনযাপনের ধারা পরিবর্তন আপনার ত্বকের উপরে প্রভাব ফেলে এবং ত্বকের ধরন পালটে যায়। আসুন, আমরা দেখি, কয়েকটি অত্যন্ত জরুরি কারণ, যার ফলে আপনার ত্বকের প্রকৃতি বদলে যেতে পারে।

বয়স বেড়ে যাওয়া
 

বয়স বেড়ে যাওয়া

ত্বকের পরিবর্তনের ক্ষেত্রে বয়স বাড়ার বিষয়টি খুব উল্লেখযোগ্য ভূমিকা নেয় । আমাদের যখন টিনএজ বা কৈশোরের কোঠায় বয়স, শরীরের হরমোনচক্রগুলি চমৎকারভাবে প্রয়োজনীয় হরমোনগুলি ক্ষরণ করে, যার ফলে শরীরে তেলের উৎপাদন হয় অপেক্ষাকৃত বেশি। যত বয়স বাড়তে থাকে, এই উৎপাদন কমে যায় আর তার ফলে আমাদের ত্বক হয়ে ওঠে শুষ্ক আর খসখসে, আর তাতে দেখা যায় নানা সমস্যা।

আবহাওয়া বা জলবায়ুর হেরফের
 

আবহাওয়া বা জলবায়ুর হেরফের

যাঁদের নানা দেশে বিেদশে থাকতে হয়, তাঁদের ত্বক সেই সব দেশের পরিবর্তিত আবহাওয়ার সঙ্গে মানিয়ে নিতে শুরু করে, যাতে শরীরের অন্য অঙ্গপ্রত্যঙ্গগুলি সুরক্ষিত থাকে। বিভিন্ন ধরনের ত্বক এইসব ক্ষেত্রে বিভিন্ন ধরনের প্রতিক্রিয়া দেখায়। কখনও দেখা যায় শুষ্ক ত্বক আরও শুষ্ক হয়ে গেছে আর তৈলাক্ত ত্বক ততটা তৈলাক্ত নেই। আবহাওয়া বা জলবায়ুসংক্রান্ত পরিবর্তন ত্বকের ধরন পরিবর্তনে অত্যন্ত উল্লেখযোগ্য ভূমিকা গ্রহণ করে ।

জীবনযাপনের ধারার রদবদল
 

জীবনযাপনের ধারার রদবদল

এই ঘটনার সম্ভাবনাও খুব প্রবল যে সময়ের সঙ্গে সঙ্গে আপনার নিজস্ব অভ্যাস আর জীবনযাপনের ধারা যেমন বদলেছে, সেই সব কারণের ফলে আপনার ত্বকের ধরনটিও বদলে গেছে । যদি পর্যাপ্ত পরিমাণে জল পান না করে শুধুই প্রচুর কফি পানের অভ্যেস করেন, তা হলে আপনার ত্বক রুক্ষ হয়ে যাবে। অতিরিক্ত এক্সফোলিয়েশন আপনার ত্বক থেকে প্রয়োজনীয় স্বাভাবিক তেলজাতীয় পদার্থ বার করে দেবে। এর ফলে সেই ভারসাম্য বজায় রাখতে আপনার ত্বক বেশি করে সিবাম তৈরি করবে। তার জন্য আবার আপনার শুষ্ক ত্বক আচমকা তৈলাক্ত ধরনের হয়ে যাবে।

ওষুধপত্র
 

ওষুধপত্র

যদি আপনি নিয়মিতভাবে কোনও ওষুধপত্র খান, তা হলে তার ফল আপনার ত্বকের উপরেও দেখা যায়। কিছু কিছু ওষুধ যেমন ত্বককে শুষ্ক করে দেয়, কিছু কিছু ওষুধ আবার ত্বককে তৈলাক্ত করে। কিন্তু এটি সাময়িকও হতে পারে। প্রয়োজন বুঝলে এ বিষয়ে আপনার ডাক্তারের পরামর্শ নিতে পারেন।

পুষ্টির অভাব
 

পুষ্টির অভাব

আপনি যেমন খাবার খাবেন, আপনার ত্বকও তেমন হবে। যদি আপনার খাবারে বেশি পরিমাণে চিনি থাকে, আর জাঙ্ক ফুড খাওয়ার প্রবণতা থাকে, আপনার ত্বক হয়ে উঠবে শুষ্ক আর জৌলুসহীন। উপরন্তু, পর্যাপ্ত পরিমাণে জল পান না করলেও কিন্তু বয়স বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে আপনার ত্বক আরও শুষ্ক হয়ে উঠবে ।