নাকের দু'পাশের ত্বক শুকিয়ে যাওয়ার সমস্যা অনেকেরই হয়। সমস্যাটা এমনিতে তেমন গুরুতর না হলেও মেকআপ করতে গিয়ে বেশ মুশকিলে পড়তে হয়, বিশেষ করে ওই জায়গাটায় ফাউন্ডেশন ব্লেন্ড করা কঠিন হয়ে দাঁড়ায়। নাকের দু'পাশের শুকনো চামড়ার কারণে ফাউন্ডেশন বা কনসিলার ভালো করে বসতে চায় না, ছোপ ছোপ হয়ে বিশ্রীভাবে ফুটে থাকে, ফলে দেখতে খুব খারাপ লাগে।

নাকের দু'পাশের ত্বক এভাবে শুকনো হয়ে যাওয়ার অনেক কারণ আছে। চারটে বড় কারণের কথা জেনে নিন...

 

01. অক্সিডাইজেশন জনিত ক্ষতি

01. অক্সিডাইজেশন জনিত ক্ষতি

পরিবেশের ক্ষতিকর উপাদানের কারণে নাকের দু'পাশের চামড়া শুকিয়ে যায়। আবহাওয়ার পরিবর্তন বা তাপমাত্রা কমে যাওয়ার ফলে মুখের বাকি অংশের ত্বক নরম থাকলেও নাকের দু'পাশের ত্বক শুকনো হয়ে যায়। রোদের জন্যও অনেক সময় নাকের আশপাশের চামড়া শুকিয়ে যেতে পারে। এই সমস্যা কমাতে প্রতিদিন নিয়ম করে ভালো মানের সানস্ক্রিন বারবার মাখুন।

 

02. ঠান্ডা লাগা বা অ্যালার্জি

02. ঠান্ডা লাগা বা অ্যালার্জি

ঠান্ডা লাগলে বা অ্যালার্জি হলে বারবার হাঁচি হয়, ফলে নাকের আশপাশের ত্বকে টান ধরে শুকনো লাগতে পারে। বারবার নাক মোছা, নাক ঝাড়া বা নাকে হাত দেওয়ার ফলে নাকের দু'পাশের ত্বক স্পর্শকাতর আর শুকনো হয়ে পড়ে। এরকম ক্ষেত্রে নরম টিস্যু দিয়ে নাক মুছুন, জোরে জোরে নাক ঘষবেন না।

 

03. গরম জলে স্নান

03. গরম জলে স্নান

গরম জলে স্নান করতে কে না ভালোবাসে, আমরা অনেকে স্নান করার সময় গরম জলেই মুখ ধুয়ে নিই। সমস্যা হল, গরম জল ত্বক থেকে আর্দ্রতা শুষে নিয়ে ত্বক শুকনো আর খসখসে করে দিতে পারে। ফলে গরম জলে স্নান যথাসম্ভব এড়িয়ে চলুন। সেটা একান্তই সম্ভব না হলে গরম জলে মুখ ধোওয়াটা অন্তত বন্ধ করে দিন।

 

04. আর্দ্রতার অভাব

04. আর্দ্রতার অভাব

অনেক সময় পর্যাপ্ত ময়শ্চারাইজার মেখেও নাকের আশপাশের ত্বক শুকনো থেকে যায়। ডিহাইড্রেশনের কারণেও এমন হতে পারে। সে ক্ষেত্রে সমস্যা সমাধানের সবচেয়ে ভালো উপায় হল জল খাওয়ার পরিমাণ বাড়িয়ে দেওয়া, যাতে শরীর ভেতর থেকে যথাযথ আর্দ্র থাকে।