চুল কাটা বা চুল রং করার ব্যাপারে পার্লারের হেয়ার এক্সপার্ট থেকে শুরু করে বন্ধুবান্ধব, বাড়ির লোকজন, সকলে বারবার একটাই পরামর্শ দিয়েছেন, যে এ কাজ করার সময় পেশাদারের কাছ থেকে করানোই ভালো! কিন্তু এমন অনেক সময় জীবনে আসে যখন চুল না কাটলে আর কিছুতেই চলছে না, অথচ পার্লারে যাওয়ার একদম সময় বা উপায় নেই! তা হলে স্প্লিট এন্ডস নিয়েই কাটাবেন? লকডাউনের দিনগুলো মনে করে দেখলেই বুঝতে পারবেন!

আপনার এই সমস্যাটা আমরাও হাড়ে হাড়ে বুঝি, আর সেজন্যই আমরা আপনাকে বাতলে দেব বাড়িতেই নিজের চুল নিজে ছেঁটে নেওয়ার উপায়। চুল কাটার একান্ত প্রয়োজন হয়ে পড়লে আর পার্লারে যাওয়ার উপায় না থাকলে অনুসরণ করুন আমাদের বলে দেওয়া এই স্টেপ-বাই-স্টেপ গাইড।

 

প্রথমে চুল শ্যাম্পু করে জট ছাড়িয়ে নিন

প্রথমে চুল শ্যাম্পু করে জট ছাড়িয়ে নিন

পার্লারে চুল কাটার আগে যেমন চুলে শ্যাম্পু করে নেওয়া হয়, তেমনি বাড়িতে চুল ছাঁটার সময়ও আগে চুল পরিষ্কার করে নেওয়া দরকার। চুলে শ্যাম্পু করে তোয়ালে দিয়ে মুছে নিন। পুরো শুকোবেন না, চুল যেন আধভেজা থাকে। অল্প ভেজা চুল আঁচড়ে সমস্ত জট ছাড়িয়ে নিন।

 

চুল কয়েকটা ভাগে ভাগ করুন

চুল কয়েকটা ভাগে ভাগ করুন

চুল আঁচড়ানোর পর পুরো চুল তিনটে কি চারটে ভাগে ভাগ করে নিন। চুল কাটার সময় এক একটা ভাগ ধরে কাটতে হবে। প্রতিটি ভাগ ক্লিপ দিয়ে মাথার ওপরে তুলে আটকে দিন।

 

চুলের দৈর্ঘ্য ঠিক করে নিন

চুলের দৈর্ঘ্য ঠিক করে নিন

এই ধাপে চুল কতটা কাটবেন সেটা ঠিক করতে হবে। এক ইঞ্চি, দু' ইঞ্চি, তিন ইঞ্চি, যতটাই কাটুন না কেন আগে দেখে নিন। চুলের একটা অংশের ডগার দিকটা তর্জনী আর মধ্যমার ফাঁকে চেপে ধরে আঙুল নামিয়ে আনুন। এই অংশটা আপনি কেটে বাদ দেবেন। কতটা কাটবেন সেটা ঠিক করে নিন।

 

ভাগে ভাগে চুল ছেঁটে ফেলুন

ভাগে ভাগে চুল ছেঁটে ফেলুন

চুলের নিচের ছোট একটা অংশ নিয়ে আঁচড়ে নিন, যতটুকু দৈর্ঘ্য কাটতে চান, দুই আঙুলের ফাঁকে ধরুন। সাবধানে অংশটুকু কেটে বাদ দিয়ে দিন। আবার একটা ভাগ নিন, আগের কাটা অংশটার সঙ্গে এই নতুন অংশটা মিশিয়ে নিয়ে আগের মাপের সঙ্গে সমান করে বাড়তিটুকু কেটে ফেলুন। চুলের প্রতিটা ভাগ এভাবে কাটতে হবে।

 

চুলের নিচটা সমান আছে কিনা দেখে নিন

চুলের নিচটা সমান আছে কিনা দেখে নিন

এটা আর আলাদা করে বলার কিছু নেই (তবু বলা দরকার যাতে অতিরিক্ত উৎসাহের বশে ভুল না করে বসেন), একটু সময় পর পরপরই ভালো করে দেখে নিন চুল সমান করে কাটা হচ্ছে কিনা। নিশ্চিত হতে চুল আঁচড়ে আলাদা আলাদা সিঁথি করে দেখে নিন। চুল সমান না থাকলে অসমান অংশগুলো ঠিক করে ছেঁটে নিন। ব্যস, আপনার চুল রেডি!