রুক্ষ চুলের মতো বিরক্তিকর আর কিছু হয় না! খোলা বাতাসে চুল শুকোলে চুল সিংহের কেশরের মতো ফুলে থাকে! আবার বাতাসে একটু আর্দ্রতা থাকলেই কষ্ট করে করা দুর্দান্ত হেয়ারস্টাইলটা কেমন মিইয়ে যাওয়া মুড়ির মতো হয়ে যায়! এ যন্ত্রণা কি একটু? উফফ!

তবে অত দুশ্চিন্তা করারও কিছু নেই, কারণ এই সমস্যার সমাধান নিয়ে হাজির হয়েছি আমরা। আসলে আপনার চুল খুব শুকনো হয়ে গেলে উড়ো আর রুক্ষ হয়ে যায়। চুল খুব শুকনো হয়ে গেলে চুলের কিউটিকল ফুলে ওঠে এবং তাতে বাতাসের জলীয় বাষ্প ঢুকে যায়। এর একমাত্র ফলশ্রুতি হল, সিংহের কেশরের মতো মাথার চারপাশে উড়তে থাকা, ফুলে থাকা চুল! বুঝতেই পারছেন, এ সমস্যার সমাধান একটাই, সেটা হল চুল আর্দ্র রাখা এবং যাতে চুল কোনওভাবেই শুকনো হয়ে না যায়, সেটা নিশ্চিত করা।

দৈনন্দিন উপযুক্ত হেয়ার কেয়ার রুটিন মেনে চললে আর সঠিক প্রডাক্ট ব্যবহার করলে কিন্তু চুলের রুক্ষতাকে সহজেই নিয়ন্ত্রণে রাখতে পারবেন আপনি। আপনার সুবিধের জন্য চুলের রুক্ষতা প্রতিরোধকারী একগুচ্ছ প্রডাক্ট সাজিয়ে দিয়েছি আমরা। শুষ্ক, ক্ষতিগ্রস্ত ও রুক্ষ চুলের মালকিন প্রতিটি মেয়ে এ সব প্রডাক্ট ব্যবহার করলে উপকার পাবেন নিশ্চিতভাবেই!

 

সঠিক শ্যাম্পু বেছে নিন

সঠিক শ্যাম্পু বেছে নিন

মসৃণ, নরম আর রুক্ষতাহীন চুল পাওয়ার প্রথম ধাপ সঠিক শ্যাম্পু বাছাই। সবসময় এমন শ্যাম্পু ব্যবহার করুন যাতে ময়শ্চারাইজিং উপাদান আছে যা রুক্ষতা নিয়ন্ত্রণে রাখে এবং আপনার চুল থাকে আর্দ্র আর কোমল। আমাদের পরামর্শ যদি শোনেন, Dove Oxygen Moisture Shampoo ব্যবহার করে দেখুন। এতে রয়েছে অক্সিফিউশন প্রযুক্তি যা শুষ্ক আর রুক্ষ চুলে পর্যাপ্ত ময়শ্চার জোগান দেয়। এই শ্যাম্পুটি ব্যবহার করলে চুলের ভল্যুম বাড়বে, স্বাভাবিক বাউন্সও পাবেন।

 

কন্ডিশনার বাদ নয়

কন্ডিশনার বাদ নয়

দৈনন্দিন চুলের যত্ন করার সময় যে বস্তুটি কিছুতেই বাদ দেওয়া চলবে না, সেটি হল কন্ডিশনার। শ্যাম্পুর পর প্রতিবার চুলে কন্ডিশনার লাগানো খুব দরকার। কন্ডিশনার চুলের গভীরে ময়শ্চারাইজার ধরে রাখে এবং চুল রুক্ষ বা শুষ্ক হতে দেয় না। চুল ভালোভাবে কন্ডিশন করতে ব্যবহার করে দেখুন ডাভ অক্সিজেন ময়শ্চার কন্ডিশনার/Dove Oxygen Moisture Conditioner। অক্সিজেনযুক্ত এই কন্ডিশনার আপনার চুলে পুষ্টি জোগায়, চুল কন্ডিশন করে, চুল আর্দ্র রাখে, আর আপনিও রুক্ষ চুলের সমস্যা থেকে মুক্তি পান।

 

সিরাম লাগানো খুব জরুরি

সিরাম লাগানো খুব জরুরি

অনেক সময় ময়শ্চারাইজিং শ্যাম্পু আর কন্ডিশনার লাগানোর পরেও চুল শুকনো আর রুক্ষ লাগতে পারে। এই সমস্যার সমাধান করতে হেয়ার কেয়ার রুটিনে রাখুন এমন হেয়ার সিরাম যা রুক্ষতাকে প্রতিরোধ করতে পারে। ট্রাই করুন  TIGI Bed Head Control Freak Frizz Control And Straightening Serum। এটি হালকা এবং একদমই তেলতেলে নয়, ফলে যে সব মেয়ের চুল রুক্ষ তাঁদের জন্য এই সিরাম আদর্শ! এটি আর্দ্রতা প্রতিরোধ করে, চুলের উড়োভাব নিয়ন্ত্রণে রাখে, আর চুল থাকে রেশমের মতো কোমল আর মসৃণ!

 

হেয়ার মাস্ক লাগান

হেয়ার মাস্ক লাগান

রোজকার ধুলোময়লা, দূষণের কারণে আর স্টাইলিংয়ের জেরে আমাদের চুলের ওপর দিয়ে অনেক ঝক্কি যায়, এর ফলে চুল ভীষণ শুষ্ক আর রুক্ষ হয়ে যায়। এই সমস্যার সমাধানে আপনার চুলের যত্নের রুটিনে রিপেয়ারিং ও কন্ডিশনিং হেয়ার মাস্ক রাখুন। আমাদের পরামর্শ মেনেToni&Guy Nourish Reconstruction Hair Mask ট্রাই করে দেখুন। এটি আপনার চুলে পুষ্টি জোগাবে এবং চুলে এনে দেবে কোমলতা আর দারুণ ঝলমলেভাব। ফাইবার ও কেরাটিন অ্যাক্টিভ উপাদানে সমৃদ্ধ এই মাস্কটি আপনার চুল ডিপ কন্ডিশনিং করে এবং রুক্ষতা প্রতিহত করে।

 

হাতের কাছে রাখুন হেয়ার স্প্রে

হাতের কাছে রাখুন হেয়ার স্প্রে

ওপরে বলা সবক'টি ধাপ মানা সত্ত্বেও চুলের শুষ্কতা কমছে না, বিশ্রীভাবে উড়ো আর রুক্ষ হয়ে আছে? তা হলে সব সময় হাতের কাছে রাখুন Toni&Guy Glamour Moisturising Shine Spray রেখে দিন আপনার ব্যাগে। যখনই মনে হবে চুল কেশরের মতো ফুলে উঠছে, স্প্রে করে নিন চুলে! রুক্ষতা কমবে, পাশাপাশি চুলে পেয়ে যাবেন দারুণ চমক!