প্রতিটি মেয়েরই সাজগোজের দুনিয়ায় হাতে খড়ি শুরু হয় সম্ভবত কাজল দিয়ে। চোখের কোণে কালো কাজলের প্রথম আখর দিয়েই শুরু হয় মেকআপের প্রতি ভালোবাসা। কিন্তু সেই প্রথম দিন থেকে শুরু করে আজ পর্যন্ত, রোজই কি একই স্টাইলে কাজল পরছেন আপনি? তা হলে কিন্তু কাজল পরা নিয়ে আরও কিছু শেখা বাকি আছে আপনার!

এই মুহূর্তে রূপচর্চার জগতে কাজলের জনপ্রিয়তা শিখর ছুঁয়েছে! ফলে কাজল পরার নিত্যনতুন স্টাইলও বেরোচ্ছে নিয়মিত! কাজেই নিজের কাজলকালো চোখদুটিকে আরও একটু সুন্দর করে তুলতে আপনিও শিখে নিন কাজল পরার নতুন স্টাইল!

 

স্মাজড লুক

স্মাজড লুক

বলে দেওয়ার দরকার নেই, এই মুহূর্তে কাজল পরার সবচেয়ে হট স্টাইল হল স্মাজড লুক! চোখের নিচের পাতায় কাজল পরুন, তারপর অ্যাঙ্গলড ব্রাশ দিয়ে আলতো ধেবড়ে দিন। বাড়তি নাটকীয়তা আনতে চোখের কোণে উইং এঁকে তারপরেও স্মাজ করে দিতে পারেন।

 

ডাবল উইং

ডাবল উইং

উইংড লাইনার পরতে ভালোবাসেন? তা হলে শুধু উপরের পাতায় কেন, নিচের পাতাতেও এঁকে নিন উইং! প্রথমে চোখের উপরের পাতার কোণে উইং আঁকুন, তারপর তার ঠিক নিচ বরাবর কাজল দিয়ে সোজা একটা রেখা টেনে নিন। সরু, গাঢ় রেখায় আরও গ্ল্যামারাস দেখতে লাগবে।

 

গ্রাফিকের মায়া

গ্রাফিকের মায়া

একটু কেতাদুরস্ত, হঠকে আই মেকআপ পছন্দ? তার সঙ্গে একটু সাহসী হতে ইচ্ছে করলে তৈরি করে নিন এই লুকটি। কাজল দিয়ে চোখের নিচের আর উপরের পাতায় গ্রাফিক লাইন আঁকুন। লাইনের শেপ নিয়ে এক্সপেরিমেন্ট করতে ঘাবড়াবেন না কিন্তু!

 

আঁখিপল্লবের মেদুরতা

আঁখিপল্লবের মেদুরতা

চোখের উপরে আর নিচে কাজল তো পরেনই! এবার চোখের পল্লবের ঠিক নিচে অর্থাৎ ল্যাশলাইন বরাবর কাজল পরে দেখুন তো! চোখ অনেক বড়ো আর সুন্দর দেখাবে! কাজল পরার ক্লাসিক স্টাইল এটি!

 

সাতের দশকের সুন্দরী

সাতের দশকের সুন্দরী

গাঢ়, মোটা করে কাজল পরার স্টাইল কোনওদিনই পুরনো হওয়ার নয়, তাই সাতের দশকের এই স্টাইলটি আজও সমান জনপ্রিয়। চোখের নিচের পাতায় মোটা করে কাজল পরুন, তারপর বড়ো করে উইং এঁকে উপরের পাতার কাজলের সঙ্গে মিশিয়ে দিলেই তৈরি সাতের দশকের নাটকীয় লুক!