সৌন্দর্যের জগৎটা কিন্তু বেশ গোলমেলে ঠেকতে পারে অনেকের কাছে। হাজাররকম প্রডাক্ট ছড়িয়ে ছিটিয়ে রয়েছে বাজারে, তার মধ্যে থেকে কোনটা যে আপনার ত্বকের উপযোগী আর কোনটা নয়, সেটা বুঝতে অনেকেই সমস্যায় পড়েন। বিশেষ করে যে সব প্রডাক্ট মোটামুটি একই ধরনের কাজ করে, তাদের মধ্যে থেকে কোনও একটা বেছে নেওয়া তো বেশ কঠিন! যেমন, মেকআপ তোলার প্রডাক্টের কথাই ধরা যাক!

ক্লেনজার, মিসেলার ওয়াটার বা মেকআপ রিমুভার দিয়ে মুখ ভালোভাবেই পরিষ্কার করে নিতে পারেন আপনি। ফাউন্ডেশনের অবশেষ থেকে শুরু করে সমস্ত তেলময়লা মুখ থেকে তুলে ফেলতে জুড়ি নেই এ সব প্রডাক্টের। কিন্তু এ সব প্রডাক্ট নিয়ে মাঝেমাঝেই বিভ্রান্তিতে পড়তে হয়। যেহেতু ত্বকের যত্নের প্রথম ধাপই হল ত্বক পরিষ্কার রাখা, তাই এ ব্যাপারে বিভ্রান্তি থাকলে বা বিষয়টি হালকাভাবে নিলে একেবারেই চলবে না। তাই আপনার কাছে গোটা ব্যাপারটা সহজ করতে আমরা আলাদা আলাদাভাবে ক্লেনজার, মিসেলার ওয়াটার আর মেকআপ রিমুভার সম্পর্কে জানাব, যাতে আপনি এদের তফাতটা বুঝতে পারেন এবং কোনটি ঠিক কী কাজ করে, সেটাও বুঝতে পারেন।

এ প্রসঙ্গে একটা কথা মাথায় রাখা দরকার। মেকআপ রিমুভার সবচেয়ে ভালো কাজ করে তখনই, যখন তার ফরমুলা মেকআপ প্রডাক্টের ফরমুলার সঙ্গে মানানসই হয়। যেমন, অয়েল ক্লেনজার দিয়ে লংওয়্যার মেকআপ সবচেয়ে ভালোভাবে তোলা যায়। কারণ লংওয়্যার মেকআপের অণুগুলোকে ওয়াটার বেসড ক্লেনজারের চেয়ে বেশি ভালোভাবে ভাঙতে পারে অয়েল বেসড ক্লেনজার।

ভাবছেন সঠিক মেকআপ রিমুভারটি কিনছেন কিনা? ব্যাপারটা জলের মতো সহজ করে বুঝে নিতে পড়তে থাকুন।

 

মিসেলার ওয়াটার

মিসেলার ওয়াটার

মাত্র কয়েক বছর হল আমাদের পরিচয় ঘটেছে মিসেলার ওয়াটার নামক বস্তুটির সঙ্গে। আর এর মধ্যেই সকলে টের পেয়ে গেছেন যে মুখ থেকে মেকআপের সমস্ত ছিটেফোঁটা আর তার সঙ্গে তেলময়লা সম্পূর্ণ তুলে ফেলতে জুড়ি নেই মিসেলার ওয়াটারের। মিসেলার ওয়াটারে জলের মধ্যে খুব ছোট ছোট তেলের কণা ভেসে থাকে। মুখ থেকে সমস্ত তেলময়লা টেনে বের করে ত্বক পরিষ্কার করে দেয়। মুখে এঁটে বসা মেকআপ আর তেলময়লা একটানে পরিষ্কার করতে চাইলে চোখ বন্ধ করে ব্যবহার করতে পারেন মিসেলার ওয়াটার।

প্রশ্ন হল, এতরকম মিসেলার ওয়াটারের মধ্যে কোনটি বেছে নেবেন! আমাদের পরামর্শ, পন্ড'স মিসেলার ওয়াটার/ Pond’s Micellar Water ট্রাই করে দেখুন। এটি প্রথম মিসেলার ওয়াটার যাতে রয়েছে জরুরি ভিটামিন। চোখ আর মুখ, দু'জায়গার জন্যই ব্যবহার করা যায়। সকালে আর রাতে ত্বক ডিপ ক্লেনজিং করতে ব্যবহার করুন। এই মিসেলার ওয়াটারটির নিয়মিত ব্যবহারে আপনার গায়ের রংও উজ্জ্বল হয়।

এই মিসেলার ওয়াটারটি তিনটি ধরনে পাওয়া যায়: রোজ, চারকোল আর অ্যালো ভেরা। আপনার ত্বক তেলতেলে হলে অ্যালো অথবা চারকোল ব্যবহার করুন, আর ত্বক স্বাভাবিক বা শুষ্ক হলে বেছে নিন রোজ।

 

ক্লেনজার

ক্লেনজার

ক্লেনজারের ফরমুলা ক্রিমের মতো হয়, মুখ থেকে তেলময়লা বা ঘাম পরিষ্কার করতে ক্লেনজার সিদ্ধহস্ত। এতে তেল আর জল, দুটি উপাদানই রয়েছে, ফলে মুখ থেকে হালকা মেকআপও তুলে ফেলতে পারে ক্লেনজার। ক্লেনজিং লোশন, তেল, ফোম বা বামের মধ্যে তেল আর জলের একটি সুষম সমাহার থাকে, ফলে ক্লেনজারের টেক্সচার হয় ক্রিম বা ফোমের মতো। ব্যবহার করলে মুখ ঝকঝকে পরিষ্কার হয়ে যায়। ল্যাকমে ডিপ ক্লেনজার ক্লেনজিং মিল্ক/ Lakmé Deep Cleanser Cleansing Milk বেছে নিতে পারেন। এটি কোমল, এবং মুখ থেকে একটানে সমস্ত তেল, ধুলোময়লা, এমনকী হালকা মেকআপও পরিষ্কার করে দিতে পারে।

 

মেকআপ রিমুভার

মেকআপ রিমুভার

নাম শুনেই বুঝতে পারছেন, মেকআপ রিমুভার আপনার মুখের সমস্ত মেকআপ অর্থাৎ ফাউন্ডেশন, কনসিলার, ব্লাশের মতো সব কিছু পরিষ্কার করে দিতে পারে। ক্লেনজারের মতো এটির টেক্সচার ঘন ক্রিমের মতো নয়, বরং বেশ তরল। এতে তেলের মতো উপাদান থাকে যা ত্বকে এঁটে বসা মেকআপও তুলে ফেলতে পারে। ওয়াটারপ্রুফ মেকআপ তুলতেও ভরসা করতে পারেন মেকআপ রিমুভারের ওপর। Lakmé Absolute Bi-Phased Make-up Remover এমন একটি প্রডাক্ট যা আপনার মুখ থেকে সমস্ত মেকআপ তুলে ফেলে আর ত্বককে রাখে আর্দ্র আর তরতাজা।

এক নজরে:

1) মুখ ধোয়ার আগে কি মেকআপ তুলে ফেলা উচিত?

হ্যাঁ! সাধারণ ফেসওয়াশ দিয়ে স্মাজ-প্রুফ বা ওয়াটারপ্রুফ মেকআপ তোলা যায় না। তাই মুখ ধোয়ার আগেই সব মেকআপ ভালোভাবে তুলে ফেলা উচিত। মেকআপ তোলার ধাপগুলোর মধ্যে সর্বশেষ ধাপ হল কোমল ক্লেনজার দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলা আর তারপরে ময়শ্চারাইজার লাগানো।

2) প্রাকৃতিক উপায়ে মেকআপ তোলা যায় কীভাবে?

নানান ঘরোয়া উপাদান আছে যা আপনি মেকআপ তোলার কাজে ব্যবহার করতে পারেন। কিন্তু তারপরে অবশ্যই ফেসওয়াশ দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলতে হবে। ভেজিটেবল অয়েল, পেট্রোলিয়াম জেলি, অ্যাভোকাডো, দুধ আর মধু দিয়ে খুব ভালোভাবে মেকআপ তোলা যায়।

3) মেকআপ তুলতে কি অলিভ অয়েল ব্যবহার করা যায়?

অনেকেই মেকআপ তোলার জন্য অলিভ অয়েল ব্যবহার করেন, অলিভ অয়েল দিয়ে মেকআপ ভালোভাবে তোলাও যায়। আপনার ত্বকের ধরনের ওপর নির্ভর করে মেকআপ রিমুভার হিসেবে অলিভ অয়েল ব্যবহার করতে পারেন। তেলতেলে ত্বকে অলিভ অয়েল লাগালে ব্রণ বেরোতে পারে, সেটা খেয়াল রাখা দরকার।