ত্বক পরিচর্যার প্রথম ও প্রধান ধাপ হল ক্লেনজিং অর্থাৎ ত্বক পরিষ্কার করা। আপনার মুখ যদি পরিষ্কার থাকে, যদি তা তেলঘাম, ধুলোময়লা বা মেকআপের অবশেষ মুক্ত হয়, তা হলে মুখে মাখার ক্রিম বা লোশন ত্বকের আরও গভীরে গিয়ে আরও সক্রিয়ভাবে কাজ করতে পারে।

ক্লেনজিং যখন এতটাই জরুরি, তখন ত্বকের ধরন অনুযায়ী সঠিক ক্লেনজার বেছে নেওয়ার কাজটাও যে সমান জরুরি হবে, তাতে আর আশ্চর্য কী! বাজারে নানান ধরনের ক্লেনজার পাওয়া যায়, তাদের মধ্যে থেকে কোনটা যে আপনার ত্বকে ঠিকঠাক কাজ করবে সেটা বোঝা বেশ সমস্যার হতে পারে! এই কথাটা মাথায় রেখেই আমরা নানারকম ক্লেনজার ও তাদের উপকারিতা নিয়ে আলোচনা করেছি, যাতে নিজের প্রয়োজনমতো সঠিক ক্লেনজারটি বেছে নিতে পারেন আপনি।

 

01. জেল ক্লেনজার

01. জেল ক্লেনজার

আপনার ত্বকে কি খুব ব্রণ বেরোয়? তা হলে জেল ক্লেনজারই আপনার জন্য সঠিক। জেল ক্লেনজার হালকা, স্বচ্ছ জেলির মতো। এটি ত্বকের বাড়তি তেল নিয়ন্ত্রণ করে রোমছিদ্রগুলো পরিষ্কার রাখে। ডিপ ক্লেনজিংয়ের মাধ্যমে রোমছিদ্রের মুখ খুলে দেয় জেল ক্লেনজার, ফলে দূরে থাকে ব্রণর সমস্যা।

বিবির পছন্দ: Dermalogica Special Cleansing Gel

 

02. ফোম ক্লেনজার

02. ফোম ক্লেনজার

তেলতেলে আর মিশ্র ত্বকের মালকিনদের জন্য আরও একটি কার্যকরী অপশন হল ফোম ক্লেনজার। ক্রিম ফরমুলার এই ক্লেনজার জলের সঙ্গে মিশে ঘন ফেনা তৈরি করে, যা মুখ থেকে সমস্ত তেলময়লা ধুয়ে দেয় আর আপনার ত্বক থাকে তেলমুক্ত,দীর্ঘ সময় ধরে!

বিবির পছন্দ: Pond’s Flawless White Deep Whitening Facial Foam

 

03. ক্রিম ক্লেনজার

03. ক্রিম ক্লেনজার

শুষ্ক ও সেনসিটিভ ত্বকের পক্ষে আদর্শ হল ক্রিম ক্লেনজার। নাম শুনেই বুঝতে পারছেন, এই ক্লেনজারের ফরমুলা ঘন ক্রিমের মতো। প্রচুর পরিমাণে ময়শ্চারাইজিং উপাদান থাকে এতে। তাই এটি ব্যবহার করলেও ত্বকের স্বাভাবিক তেলের আস্তরণ সুরক্ষিত তো থাকেই, উপরন্তু ত্বক পায় বাড়তি আর্দ্রতার স্পর্শ।

বিবির পছন্দ: Lakme Blush & Glow Strawberry Creme Face Wash

 

04. অয়েল-বেসড ক্লেনজার

04. অয়েল-বেসড ক্লেনজার

নাম শুনে ভাবছেন তো, তেলতেলে বা মিশ্র ত্বকের অধিকারিণীদের জন্য এই ক্লেনজার নয়? আসলে সব ধরনের ত্বকেই এই ক্লেনজার ব্যবহার করা যায়! কোরিয়ার যে রূপচর্চা পদ্ধতি নিয়ে আজ গোটা বিশ্বে তোলপাড়, সেখানেও কিন্তু সব কিছুর আগে অয়েল-বেসড ক্লেনজার দিয়ে মুখ পরিষ্কার করার পরামর্শ দেওয়া হয়। আপনার ত্বকের ধরন যেমনই হোক না কেন, প্রথমে অয়েল-বেসড ক্লেনজার দিয়ে মুখ পরিষ্কার করুন যাতে জমে থাকা ধুলোময়লা, মেকআপ সব আলগা হয়ে আসে। তারপর ত্বকের ধরনের সঙ্গে মানানসই অন্য কোনও ফেসওয়াশ দিয়ে দ্বিতীয়বার মুখ ধুয়ে নিন।

বিবির পছন্দ: Lakme Absolute Argan Oil Radiance Rinse Off Cleansing Oil

 

05. মিসেলার ওয়াটার

05. মিসেলার ওয়াটার

ক্লেনজারের জগতে মিসেলার ওয়াটার একদম নতুন অতিথি। কিন্তু ত্বক পরিষ্কার করার অসামান্য ক্ষমতার কারণে তা খুব দ্রুত জনপ্রিয়তার শীর্ষে উঠে এসেছে। ওয়াটার-বেসড এই ক্লেনজারটিতে ছোট্ট ছোট্ট মিসেল (তেলের অণু) রয়েছে, যা মুখ থেকে সবরকম নোংরা, মেকআপের অবশেষ, নানান দূষিত পদার্থ টেনে বের করে মুখ ঝকঝকে পরিষ্কার রাখে। আর সব চেয়ে ভালো ব্যাপারটা হল, এই ক্লেনজার লাগানোর পর আর আলাদা করে ধোওয়ার দরকার পড়ে না!

বিবির পছন্দ: Simple Kind To Skin Micellar Cleansing Water

 

06. ক্লে ক্লেনজার

06. ক্লে ক্লেনজার

বেশ কিছু বছর ধরেই ক্লে মাস্ক বাজারে চলছে। ত্বক থেকে তেল শুষে নেওয়ার ক্ষমতার জন্য ক্লে মাস্কের সুনামও রয়েছে। একইভাবে ক্লে ক্লেনজারও তেলতেলে ও কম্বিনেশন ত্বকের মালকিনদের জন্য আদর্শ, কারণ এটি মুখ থেকে বাড়তি তেল শুষে নেয়, বন্ধ রোমছিদ্রের মুখ খুলে ভেতর থেকে নোংরা বের করে আনতে পারে, আর রোমছিদ্র পুরোপুরি পরিষ্কার রাখে।

বিবির পছন্দ: Pond’s White Beauty Mineral Clay Instant Brightness Face Wash Foam