আমরা রোজ কী খাই তার একটা বিরাট প্রভাব পড়ে আমাদের স্বাস্থ্যের ওপর। যাঁরা স্বাস্থ্যকর খাওয়াদাওয়ায় বিশ্বাসী, তাঁদের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা স্বাভাবিকভাবেই বেশি, তাঁদের ফিটনেসও অনেক বেশি। আমাদের ত্বক বা চুলের স্বাস্থ্যের ক্ষেত্রেও একই কথা খাটে। ক্রমবর্ধমান দূষণ, অনিয়মিত জীবনযাত্রা, শারীরিক অসুস্থতা এবং নানা রাসায়নিক শ্যাম্পু-কন্ডিশনারের প্রভাব আপনার চুল করে তোলে শুষ্ক আর নিষ্প্রাণ। তাই স্বপ্নের মতো ঘন কালো মসৃণ চুল পেতে সঠিক প্রডাক্ট ব্যবহার করা যতটা দরকার, ঠিক ততটাই জরুরি পুষ্টিকর খাওয়াদাওয়া।

চুলের যে কোনও সমস্যার মোকাবিলা করতে ভিটামিন বিশেষভাবে জরুরি। ভাবছেন সুস্থ মজবুত চুলের জন্য কী কী ভিটামিন রাখবেন রোজকার খাবারে? নিচে রইল তার তালিকা।

 

01. ভিটামিন সি

01. ভিটামিন সি

সুস্বাস্থ্যের ভাঁড়ার রয়েছে ভিটামিন সি-এর মধ্যে; ভিটামিন সি শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়, ত্বক উজ্জ্বল করে তোলে, সেই সঙ্গে কোলাজেনের মাত্রা বাড়ায়, যা চুলের বাড়বৃদ্ধির জন্য অত্যন্ত জরুরি। ভিটামিন সি সমৃদ্ধ খাদ্য/ vitamin C rich foods যেমন লেবু, কমলালেবু, আনারস, মুসুম্বি রাখুন ডাইয়েটে, এ সব খাবার চুল আর স্ক্যাল্পের সমস্যা মেটাবে, চুলের বৃদ্ধি/ hair growth-তেও সাহায্য করবে।

 

02. ভিটামিন ই

02. ভিটামিন ই

একাধিক সৌন্দর্যবর্ধক প্রডাক্টে ভিটামিন ই থাকে। ভিটামিন ই-তে রয়েছে প্রাকৃতিক অ্যান্টিঅক্সিডান্ট। হেয়ার কেয়ার প্রডাক্টের অন্তর্গত ভিটামিন ই চুলের বৃদ্ধি ঘটাতে পারে/vitamin E can boost hair growth এবং চুলের চকচকেভাব বাড়িয়ে তুলতে পারে। ভিটামিন ই ক্যাপসুল আকারেও পাওয়া যায়, এবং সরাসরি ত্বকে বা চুলে লাগানো যায়। আর খাদ্যের মাধ্যমে ভিটামিন ই পেতে ভরসা রাখুন আমন্ড, মটর, পালং শাক, হুইট জার্মের ওপর, এই সবক'টি খাবারেই রয়েছে ভিটামিন ই-র বিরাট ভাঁড়ার।

 

03. বায়োটিন

03. বায়োটিন

চুল উঠে যাওয়া, নির্জীব নিষ্প্রাণ চুলের জন্য অনেক সময়ই দায়ী বায়োটিনের অভাব। বায়োটিন একটি ভিটামিন বি কমপ্লেক্স/vitamin B complex যা একাধিক খাবারে পাওয়া যায়। প্রতিদিন শরীরে বায়োটিনের জোগান পেতে বাদাম, নানাধরনের বীজ, ডিম, রাঙা আলুর মতো সবজি খান

 

04. ভিটামিন ডি

04. ভিটামিন ডি

হাড় সুস্থ আর মজবুত রাখা ছাড়াও ভিটামিন ডি-র অসংখ্য উপকারিতা রয়েছে এবং এটি চুলের পক্ষেও বিশেষ উপকারী। চুলের ফলিকলে পুষ্টি জোগায় ভিটামিন ডি, তার অভাব থেকে চুল উঠে যেতে পারে। ভিটামিন ডি-এর শ্রেষ্ঠ উৎস/ best source of vitamin D হল রোদ। ডিমের কুসুম, মাশরুম, স্যামন মাছ থেকেও পাবেন ভিটামিন ডি।

 

05. ভিটামিন এ

05. ভিটামিন এ

মুখে বয়সের দাগ, বলিরেখা রুখতে ভিটামিন এ খুব গুরুত্বপূর্ণ! কিন্তু জানেন কি, সেবাম উৎপাদনের ক্ষেত্রেও ভিটামিন এ-র ভূমিকা রয়েছে? চুলের স্বাস্থ্যরক্ষায় এই সেবাম খুব দরকারি! রোজকার প্রয়োজনীয় ভিটামিন এ/ daily dose of vitamin A পেতে পারেন টুনা, স্যামনের মতো মাছ থেকে, ডিম সেদ্ধ থেকে এবং গাজর, কেল, মিষ্টি আলুর মতো সবজি থেকে।