সমস্যা যখন চুল নিয়ে, তখন অযাচিত উপদেশের অভাব হয় না! কখনও বন্ধু, কখনও আত্মীয়স্বজন, কখনও বা ইন্টারনেটের সুবাদে গাদাগাদা পরামর্শ আর তথ্য আসতেই থাকে। আর এ সব পরামর্শ বা তথ্যের সবটাই যে ঠিক, তা কিন্তু মোটেও নয়! এভাবেই চুল নিয়ে প্রচুর ভুল ধারণার জন্ম হয় যা শেষ পর্যন্ত চুলের ক্ষতিই করে। তাই আপনার চুলের জন্য কোন পদক্ষেপগুলো সঠিক আর উপকারী, সেটা আপনাকে আগেই বুঝে নিতে হবে। বিশেষ করে আপনার কোঁকড়ানো চুল হলে তো আর কথাই নেই!

কার্লি বা কোঁকড়ানো চুলের যত্ন নিয়ে বহু ভুল ধারণা প্রচলিত রয়েছে। এক নজরে দেখে নিন:

 

ভেজা চুলে তেল লাগালে চুলে ময়শ্চার লক থাকে

ভেজা চুলে তেল লাগালে চুলে ময়শ্চার লক থাকে

তেলে আর জলে মিশ খায় না, সে কথা তো সবাই জানেন! কাজেই কোঁকড়ানো ভেজা চুলে ময়শ্চারাইজিং তেল লাগালে তা ভালোভাবে চুলে বসে গিয়ে ময়শ্চার ধরে রাখবে, এটা সম্পূর্ণ ভুল ধারণা। বরং এভাবে তেল মাখতে গিয়ে আপনার দামি তেলই নষ্ট করছেন শুধু, কাজের কাজ কিছুই হচ্ছে না! ভেজা চুলে তেল মাখলে একটা সাময়িক চকচকেভাব পাওয়া যায় ঠিকই, কিন্তু তা নেহাতই তেলচকচকেভাব, স্বাস্থ্যের জৌলুস নয়। বরং তেলের বদলে আপনার ভেজা কোঁকড়া চুলে মাখুন  TIGI Bed Head On The Rebound Curl Recall Cream । গ্লিসারিনের গুণযুক্ত এই ক্রিম আপনার কোঁকড়ানো চুল 72 ঘণ্টা পর্যন্ত সুরক্ষিত রাখে, আর গভীর থেকে আর্দ্রতা জোগায়।

 

মাল্টিটাস্কিং প্রডাক্ট ব্যবহার করা সহজ

মাল্টিটাস্কিং প্রডাক্ট ব্যবহার করা সহজ

একই প্রডাক্ট দিয়ে অনেকরকম কাজ করছেন? তাতে কিন্তু বিশেষ লাভ হচ্ছে না! একবার ভেবে দেখুন তো মুখে মাখার ক্রিম দিয়ে কি আর হাত ধোওয়ার কাজ হয়? মাল্টিটাস্কিং প্রডাক্ট সম্পর্কেও একই কথা বলব। শ্যাম্পু দিয়ে স্ক্যাল্প পরিষ্কার হয় আর চুলে আর্দ্রতার জোগান দেয় কন্ডিশনার। সঠিক পরিচর্যার জন্য মাল্টিটাস্কিং প্রডাক্ট কখনওই স্থায়ী সমাধান নয়। এতে কোনও কাজ তো হয়ই না, উলটে চুলের গোড়ায় প্রডাক্টের অবশেষ জমতে থাকে, আপনার কোঁকড়ানো চুল দেখায় নেতানো আর তেলতেলে।

 

চুল ব্রাশ করা উচিত নয়

চুল ব্রাশ করা উচিত নয়

কোঁকড়ানো চুলে ব্রাশ করা মানেই নাকি চুলের কোঁকড়ানোভাব নষ্ট হয়ে যাওয়া। বিশ্বাস করুন, এর চেয়ে বাজে কথা আর দুটো হয় না! সত্যিটা হল, চুল নিয়মিত ব্রাশ করলে স্ক্যাল্পে তৈরি প্রাকৃতিক তেল সারা চুলে ছড়িয়ে পড়ে। চুলের স্বাস্থ্য ধরে রাখতে এই তেল খুব দরকার। তা ছাড়া চুল ব্রাশ করলে কার্ল নষ্টও হয় না। চুল ব্রাশ করার পর সঠিক প্রডাক্ট ব্যবহার করলে কার্ল একদম ঠিকঠাক থাকে। TIGI Bed Head Manipulator Styling ব্যবহার করুন। এর লাইটওয়েট ফরমুলা আপনার চুলের স্টাইল সুন্দর করে ধরে রাখবে, চুল নেতিয়ে যাবে না।

 

ক্ষতির হাত থেকে বাঁচাতে কোঁকড়া চুলে প্রোটেকটিভ হেয়ারস্টাইল

ক্ষতির হাত থেকে বাঁচাতে কোঁকড়া চুলে প্রোটেকটিভ হেয়ারস্টাইল

কোঁকড়া চুলের মেয়েরা ভেজা চুল বক্সার বিনুনি বা স্কার্ফ বানের স্টাইলে বেঁধে নেন। সাঁতার কাটার সময়ও এভাবে চুল বেঁধে রাখেন অনেকে। এতে কিন্তু চুলের কোনও উপকার হয় না! আসলে কার্লগুলো তৈরি হয় চুলের গোড়ায়, এবং বাকিটা চুলের নিজস্ব গতিপ্রকৃতি অনুযায়ী শেপ নেয়। টাইট বিনুনিতে বেঁধে রাখলে চুল স্বাভাবিকভাবে শুকোতে পারে না। কোকঁড়া চুল কখনও একজায়গায় জড়ো করে বেঁধে রাখবেন না, নিজের মতো করে শেপ নিতে দিন।

 

চুল না ছেঁটে যথেচ্ছ বড় হতে দেওয়া উচিত

চুল না ছেঁটে যথেচ্ছ বড় হতে দেওয়া উচিত

নিয়মিত ছেঁটে ফেললে চুল বড় হয়, এটা যেমন ভুল ধারণা, তেমনি না ছেঁটে ইচ্ছেমতো চুল বড় হতে দেওয়াও কোনও কাজের কথা নয়। চুল মাঝেমধ্যে না ছাঁটলে ডগা ফেটে যাবে, চুল আরও রুক্ষ আর বিবর্ণ দেখাবে। প্রতি তিন থেকে পাঁচ মাস অন্তর চুলের ডগা ছেঁটে ফেলুন। ঠিকমতো যত্ন না করলে চুলের দৈর্ঘ্য মেনটেন করতে পারবেন না! চুলের ডগা ঠিকমতো না ছেঁটে ফেললে তা ভেঙে ঝরে যেতে পারে, কার্লগুলোও ঠিকমতো থাকে না। চুলে পুষ্টি জোগাতে ও শুষ্কতা দূরে রাখতে নিয়মিত বাড়িতে  Dove Elixir Hair Fall Rescue Hair Oil দিয়ে চুল আর স্ক্যাল্প মাসাজ করুন।