লিপস্টিক পরাকে যদি ছেলেখেলার মতো সহজ ভেবে থাকেন, তা হলে ভাবনা পাল্টানোর সময় এসেছে। ঠোঁটে খানিকটা রং ঘষে নিলেই লিপস্টিক পরা হয়ে যায় না। ঠোঁট আকর্ষণীয় ও সুন্দর করে তুলতে হলে লিপস্টিকের গুণমান যেমন জরুরি, তেমনি নিখুঁতভাবে পরার ব্যাপারটাও গুরুত্বপূর্ণ। কীভাবে ঠোঁটের আউটলাইন আঁকছেন আর কীভাবে ঠোঁট ভরাট করছেন, এ সবের ওপরে অনেক কিছু নির্ভর করে। মনে আছে কাইলি জেনার কীভাবে ঠোঁটের লাইনার আঁকার মধ্যে দিয়ে ভরাট করে তুলেছিলেন ঠোঁট? নয়ের দশকের সুপারমডেল নাওমি ক্যাম্পবেলও শুধু লিপলাইনারের সুবাদেই নজর কেড়ে নিয়েছেন। লিপস্টিকের চেয়ে এক শেড গাঢ় রঙের লাইনার পরতেন তিনি।

 

আমরা জানি লিপলাইনারের সঙ্গে আপনারা যথেষ্টই পরিচিত - দুর্দান্ত এই প্রডাক্টটি আপনার ঠোঁটের শেপ সুন্দর করার পাশাপাশি ঠোঁট ভরাট দেখাতে সাহায্য করে, পাশাপাশি লিপস্টিক দীর্ঘস্থায়ী হতেও সাহায্য করে, ঠোঁটের কিনারা থেকে ধেবড়ে যেতে দেয় না। তবে লিপলাইনারের কোন শেডগুলো আপনার গায়ের রঙের সঙ্গে মানানসই সেটা বোঝা একটু জটিল হতে পারে। ভারতীয় গায়ের রঙের সঙ্গে কোন লাইনারের শেড মানাবে তা খুঁজে বের করতে ইন্টারনেট তন্ন তন্ন করে চষে ফেলেছে আমাদের টিম বিবি, এবং সেই কাজ করতে গিয়েই আমরা এমন একটি লিপলাইনারের রেঞ্জ খুঁজে পেয়েছি যার রং গাঢ়, ঠোঁটের ওপরে একেবারেই ভারী নয়, এবং গায়ের রঙের সঙ্গে সুন্দর মানিয়ে যায়। জেনে নিন এই লিপলাইনারের ব্যাপারে আরও তথ্য এবং কেন এই রেঞ্জটি অন্যদের চেয়ে আলাদা।

 

 

01. লিপলাইনার দিয়ে কোলাজ বানান

01. লিপলাইনার দিয়ে কোলাজ বানান

ল্যাকমে পারফেক্ট ডেফিনিশন লিপলাইনার/Lakmé Perfect Definition Lip Liner-এ রয়েছে আটটি ঝলমলে রঙের শেড যা আপনার ঠোঁট নিখুঁতভাবে ডিফাইন করে তোলে। এর ক্রিম ফরমুলা সহজেই ঠোঁটের ওপর বসে গিয়ে এনে দেয় গাঢ় উজ্জ্বল রঙের ছোঁয়া, রং ধেবড়েও যায় না। এই লিপলাইনার দিয়ে সহজেই ওভারলাইন বা আন্ডারলাইন করে ঠোঁট ভরাট বা পাতলা, দুইই করতে পারবেন। এই লিপলাইনার ছাড়া ঠোঁটের সাজ অসম্পূর্ণ!

 

 

02. গাঢ় রঙের জন্য গভীর পিগমেন্টেড লাইনার

02. গাঢ় রঙের জন্য গভীর পিগমেন্টেড লাইনার

জেফ্রি স্টারের গোলাপি থেকে কাইলি জেনারের পার্পল পর্যন্ত সব রংই এই রেঞ্জে রয়েছে, আর ব্রাউন বা ন্যুডের তো কথাই নেই! ভারতীয় ত্বকের রঙের বৈচিত্রের কথা মাথায় রেখেই ল্যাকমে/Lakmé সবসময় তাদের প্রডাক্ট বানিয়েছে, আর এই লিপ পেনসিলগুলোর ক্ষেত্রেও একই কথা প্রযোজ্য।

লিপলাইনার পরার সময় আগে ঠোঁট এক্সফোলিয়েট করে হাইড্রেট করে নিন, তারপর পছন্দের রং দিয়ে লাইন আঁকুন। ঘরে তৈরি মধু-চিনির স্ক্রাব দিয়ে ঠোঁট এক্সফোলিয়েট করতে পারেন, তারপর আর্দ্রতার জন্য ব্যবহার করুন ল্যাকমে লিপ লাভ চ্যাপস্টিক/ Lakmé Lip Love Chapstick। ওপরের ঠোঁটের খাঁজে ইংরেজি এক্স চিহ্ন এঁকে বাইরের কোনাগুলো ডিফাইন করুন। তারপর সবক'টা রেখা জুড়ে দিন। এবার আউটলাইন আঁকুন। ম্যাচিং ম্যাট লিপস্টিক দিয়ে ঠোঁটের মাঝের অংশ ভরে নিলেই আপনার কাজ শেষ!

 

 

03. কোন রং বেছে নেবেন?

03. কোন রং বেছে নেবেন?

ভারতীয় গায়ের রঙের সঙ্গে সবক'টা শেডই মানানসই, তবু আমরা প্রতিটি গায়ের রঙের জন্য কিছু বিশেষ শেড বেছে নিয়েছি। যাঁদের গায়ের রং খুব ফরসা তাঁরা পিঙ্ক স্পার্কলPink Sparkle আর ন্যুড স্পার্কলNude Sparkle পরুন। মাঝারি গায়ের রঙের জন্য রয়েছে কসমস ব্লাশ/Cosmos Blush এবং স্ট্রবেরি পাইStrawberry Pie। শ্যামবর্ণের মেয়েরা পরুন রোজউড ফরেস্ট/Rosewood Forest এবং স্পাইস নোটSpice Note-এর মতো তাক লাগানো শেড। এই সব শেড খুব সহজেই ব্লেন্ড হয়ে যায়, ঠোঁটও সুন্দরভাবে ফুটে ওঠে। আজই সংগ্রহ করুন আর ঠোঁটে নিয়ে আসুন নতুন চমক।