বডি পলিশিং হল একটি বিলাসবহুল স্কিন ট্রিটমেন্ট যা ত্বক উজ্জীবিত করে তোলে, ত্বকে এনে দেয় ঝলমলে উজ্জ্বলতা। বেশিরভাগ সালোন আর স্পায়ে বডি পলিশিং করানোর খরচ প্রচুর আর তার ফলাফলও কয়েক সপ্তাহের বেশি টেকে না। তাই কম খরচে নির্জীব ত্বকে প্রাণের ছোঁয়া আনতে চাইলে সাহায্যের জন্য আছি আমরা। রইল একটি সহজ বডি পলিশ রুটিন যা আপনি বাড়িতেই করে নিতে পারবেন। শুধু মেনে চলুন কয়েকটি সহজ ধাপ।

 

ধাপ #1: বডি স্ক্রাব

ধাপ #1: বডি স্ক্রাব

ত্বকের একটি নিজস্ব শেডিং সাইকল আছে, যখন পুরনো কোষ সরিয়ে নতুন কোষ জন্মায় আর পুরনো মৃত কোষ ত্বকের উপরিভাগে জমা হয়। এটি একটি নিত্যনৈমিত্তিক প্রক্রিয়া। এই প্রক্রিয়ার গতি নির্ভর করে আপনার বয়স, পরিবেশ, ত্বকের ধরন এবং আরও কিছু বিষয়ের ওপর। তবে এই প্রক্রিয়ায় একটা সমস্যা রয়েছে - তা হল মৃত কোষ নিজে থেকে ঝরে যায় না, বরং ত্বকের ওপরে আটকে থাকে। এই মৃত কোষ জমে ত্বকের ওপর একটা আস্তরণ তৈরি হয় যা ময়শ্চারাইজারকে ত্বকের গভীরে ঢুকতে বাধা দেয়। ইনগ্রোন হেয়ার বা ত্বকের ভেতরে গুটলি পাকিয়ে থাকা রোমের জন্য এই মৃত কোষই দায়ী। এক্সফোলিয়েশন করলে এই মৃত কোষ সাফ করা যায় এবং নিমেষে ত্বক হয়ে ওঠে মসৃণ আর ঝকঝকে।

আগে ত্বক পরিষ্কার করে নিন। কোমল বডিওয়াশ দিয়ে ত্বক পরিষ্কার করুন। তারপর ডাভ এক্সফোলিয়েটিং বডি পলিশ স্ক্রাব উইথ কিউয়ি সিডস অ্যান্ড কুল অ্যালো/ Dove Exfoliating Body Polish Scrub with Kiwi Seeds and Cool Aloe-এর মতো কোমল বডি স্ক্রাব ত্বকে লাগিয়ে চক্রাকারে ঘষতে থাকুন। এই স্ক্রাব মৃত কোষ তুলে দেয়, দাগছোপ কমায় এবং অ্যালো আর কিউয়ির নির্যাস ত্বক উজ্জ্বল করে তোলে। ঘষার সময় খুব বেশি চাপ দেবেন না, এক থেকে দু' মিনিট স্ক্রাব করুন। হালকা গরম জল দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। সবচেয়ে ভালো ফল পেতে সপ্তাহে দু'বার সারা শরীর স্ক্রাব করে নিন।

 

ধাপ #2: শেভ

ধাপ #2: শেভ

শেভ বা ওয়াক্স করে রোম তুলে ফেলার (দরকার হলে) সেরা সময় এটাই! মৃত কোষ এক্সফোলিয়েশনের ফলে সাফ হয়ে যাওয়ায় মসৃণ আর পরিচ্ছন্নভাবে শেভ করতে পারবেন আপনি। রোমের বৃদ্ধির উলটো দিকে শেভ করুন। ওয়াক্সিং করা পছন্দ হলে স্ক্রাবিংয়ের পরে করুন। তাতে ওয়াক্স শরীরের রোমে ভালোভাবে আটকে যাবে, রোম মাঝপথে ভাঙবে না।

 

ধাপ #3: অ্যালো ভেরা জেল লাগান

ধাপ #3: অ্যালো ভেরা জেল লাগান

এবার শীতল উপাদান দিয়ে ত্বক শান্ত করার সময়। ল্যাকমে নাইন টু ফাইভ ন্যাচারাল অ্যালো অ্যাকোয়া জেল/Lakmé 9to5 Naturale Aloe Aqua Gel  নিয়ে সারা গায়ে মেখে নিন। এটিই আপনার ত্বকে পুষ্টি জোগানোর প্রথম ধাপ। অ্যালো ভেরা বাতাস থেকে আর্দ্রতা শুষে নিয়ে আপনার ত্বক হাইড্রেটেড রাখে। অল্প পরিমাণে নিয়ে ত্বকে মেখে ফেলতে পারেন, আবার বেশি করে নিয়ে মাস্কের মতো করেও লাগাতে পারেন। 10-15 মিনিট পরে মাসাজ করে নেবেন।

 

ধাপ #4: বডি লোশন

ধাপ #4: বডি লোশন

নরম উজ্জ্বল ত্বকের রহস্য লুকিয়ে আছে ময়শ্চারাইজারে। ব্যবহার করুন লাভ বিউটি অ্যান্ড প্ল্যানেট ন্যাচারাল মুরুমুরু বাটার অ্যান্ড রোজ গ্লো বডি লোশন/ Love Beauty & Planet Natural Murumuru Butter & Rose Glow Body Lotion, এটি ত্বকে মুহূর্তে শুষে গিয়ে ত্বক সুস্থ করে তোলে। মুরুমুরু বাটারে সমৃদ্ধ এই ময়শ্চারাইজারটি ত্বকে গভীর থেকে পুষ্টি জোগায় এবং উজ্জ্বলতা এনে দেয়। আর আপনি পেয়ে যান নরম, বুলগেরিয়ার গোলাপের সুগন্ধে ভরপুর ত্বক, যা দীর্ঘক্ষণ স্থায়ী হয়।

 

ধাপ #5: বডি ইলুমিনেটর

ধাপ #5: বডি ইলুমিনেটর

এই রুটিনটি যদি আপনি রাতে শুতে যাওয়ার আগে অনুসরণ করেন, তা হলে ময়শ্চারাইজারই হবে আপনার শেষ ধাপ। কিন্তু যদি দিনের বেলায় বা বাইরে বেরোনোর আগে করেন, তা হলে শরীরে লাগিয়ে নিন হাইলাইটার। এতে আপনার ত্বক সুপারমডেলদের মতো ঝকঝকে দেখাবে। ময়শ্চারাইজারের সঙ্গে লিকুইড ইলুমিনেটর মিশিয়ে মাখতে পারেন, অথবা মেকআপের মতো ত্বকের ওপরে লাগিয়ে দিন। আমাদের পছন্দ ল্যাকমে অ্যাবসলিউট লিকুইড হাইলাইটার/ Lakmé Absolute Liquid Highlighters। এটি সবধরনের ত্বকের উপযোগী এবং পাওয়া যায় তিনটি ভিন্ন শেডে। এখান থেকে বেছে নিন মনের মতো শেড আর ব্যবহার করুন পছন্দমতো