তেলতেলে বা মিশ্র অর্থাৎ কম্বিনেশন ত্বকের মালকিন যে সব মেয়ে, তাঁরা খুব ভালো করেই জানেন তেলতেলে টি-জোনের যন্ত্রণা কী! এ ক্ষেত্রে মুখের টি-জোন, মানে কপাল, নাক আর চিবুক অঞ্চলে এত বেশি সেবাম তৈরি হয় যে, রোমছিদ্র বন্ধ হয়ে গিয়ে ব্ল্যাকহেডস, ব্রণ বেরোয়, সঙ্গে ম্যাড়মেড়ে বিবর্ণভাব তো আছেই! এমন ত্বকে মেকআপ করাও বেশ সমস্যার! প্রতিপদে সতর্ক থাকতে হয় যাতে মেকআপ গলে গিয়ে মুখময় ছড়িয়ে উদ্ভট না দেখায়! তা ছাড়া মুখ থেকে বাড়তি তেল শুষে নিতে ঘণ্টায় ঘণ্টায় ব্লটিং পেপার চাপা... ঝামেলা কী আর একটা!

কিন্তু এই ঝামেলা আর পোয়াতে হবে না! তেলতেলে টি-জোনের সমস্যার সমাধানে আমরা নিয়ে এসেছি দারুণ পাঁচটি টিপস। জেনে নিন সেই সব টিপস আর চিরকালের মতো মিটিয়ে ফেলুন তেলতেলে টি-জোনের সমস্যা!

 

01. মুখ ডবল ক্লিঞ্জ করুন

01. মুখ ডবল ক্লিঞ্জ করুন

যাঁদের ত্বক তেলতেলে বা কম্বিনেশন, তাঁদের ডবল ক্লেঞ্জ করতেই হবে। নাম শুনেই বুঝতে পারছেন, এ ক্ষেত্রে মুখ পরিষ্কার করতে হবে দু'বার। প্রথম ধাপে মিসেলার ওয়াটার ব্যবহার করুন; বেছে নিন পন্ড'স ভিটামিন মিসেলার ওয়াটার ডি-টক্স চারকোল/ Pond's Vitamin Micellar Water D-Toxx Charcoal, এটি মুখের ওপর এঁটে বসা মেকআপ তুলে ফেলে, সঙ্গে ধুলোময়লা, তেল আর অন্য সব দূষিত পদার্থও উঠিয়ে দেয়। ফলে দ্বিতীয় ধাপে ক্লেঞ্জারের কাজ করতে সুবিধে হয়, এবং ত্বকের গভীরে জমে থাকা ময়লাও সহজেই উঠে আসে। বেছে নিন পন্ড'স অয়েল কন্ট্রোল ফেসওয়াশ/ Ponds Oil Control Face Wash, তাতে অতিরিক্ত সেবাম উৎপাদন নিয়ন্ত্রণে থাকবে।

 

02. তেলবিহীন ময়শ্চারাইজার মাখুন

02. তেলবিহীন ময়শ্চারাইজার মাখুন

তেলতেলে বা কম্বিনেশন ত্বক বলে ময়শ্চারাইজার মাখা বন্ধ করবেন না একেবারেই। বরং এমন কিছু মাখুন যা আপনার টি-জোন আরও বেশি তেলতেলে করে তুলবে না। পন্ডস সুপার লাইট জেল অয়েল ফ্রি ময়শ্চারাইজার উইথ হ্যালিউরনিক অ্যাসিড+ভিটামিন ই/ Ponds Super Light Gel Oil Free Moisturiser With Hyaluronic Acid + Vitamin E তৈলাক্ত ও কম্বিনেশন ত্বকের জন্য আদর্শ। এটি জেল-বেসড এবং সম্পূর্ণ তেলবিহীন ফরমুলায় তৈরি। এটি মাখলে আপনার ত্বক তেলচকচকে বা চটচটে লাগবে না, মেকআপ করার আগেও অনায়াসেই মাখতে পারবেন।

 

03. মাল্টি-মাস্কিং করে দেখুন

03. মাল্টি-মাস্কিং করে দেখুন

মুখের বাড়তি তেল আর সেবাম সবচেয়ে ভালো শুষে নিতে পারে ফেস মাস্ক। কিন্তু আপনার যদি কম্বিনেশন ত্বক হয়, তা হলে ভরসা রাখুন মাল্টি-মাস্কিংয়ে। ভাবছেন সেটা আবার কী? এর মানে হল, মুখের টি-জোনে ল্যাকমে অ্যাবসলিউট পারফেক্ট র‍্যাডিয়্যান্স মিনারেল ক্লে মাস্ক/ Lakme Absolute Perfect Radiance Mineral Clay Mask লাগান আর মুখের বাকি অংশে বা অপেক্ষাকৃত শুকনো অংশে লাগান সেন্ট ইভস রিভাইটালাইজিং আকাই ব্লুবেরি অ্যান্ড চিয়া সিড অয়েল শিট মাস্ক/ St. Ives Revitalizing Acai Blueberry & Chia Seed Oil Sheet Mask, যাতে মুখের বাকি ত্বক পুষ্টি পায়।

 

04. প্রাইমার বাদ দেবেন না

04. প্রাইমার বাদ দেবেন না

নিয়মিত ক্লেনজিং, ময়শ্চারাইজিং আর মাস্কিং করলে তৈলাক্ত টি-জোন সামাল দেওয়া যায় ঠিকই, কিন্তু পাশাপাশি বাড়তি তেলচকচকে ভাব নিয়ন্ত্রণে রাখতে মেকআপ লাগানোও দরকার! ল্যাকমে অ্যাবসলিউট ব্লার পারফেক্ট মেকআপ প্রাইমার/ Lakme Absolute Blur Perfect Makeup Primer-এর মতো ম্যাট প্রাইমার লাগাতে পারেন; মুখের প্রাকৃতিক তেল যাতে মেকআপ নষ্ট করে না দেয় সেটি সুনিশ্চিত করে এই প্রাইমারটি, সঙ্গে মুখের রোমছিদ্রগুলো ভরাট করে একটা মসৃণতা এনে দেয়।

 

05. ম্যাট ফাউন্ডেশন ব্যবহার করুন

05. ম্যাট ফাউন্ডেশন ব্যবহার করুন

তেলতেলে ত্বকে ম্যাট লিকুইড ফাউন্ডেশন ব্যবহার করার টোটকা অনেকেই জানেন। ল্যাকমে নাইন টু ফাইভ প্রাইমার+ম্যাট পারফেক্ট কভার ফাউন্ডেশন/ Lakmé 9to5 Primer + Matte Perfect Cover Foundation আপনার ত্বকে এনে দেয় মসৃণ ম্যাট ফিনিশ, পাশাপাশি সময়ের সঙ্গে সঙ্গে ত্বক যাতে তেলতেলে না হয়ে পড়ে, সেটিও সুনিশ্চিত করে।