তেলতেলে ত্বকের ঝঞ্ঝাট সামলানো যথেষ্ট বিরক্তিকর! আর তার সঙ্গে যদি যোগ হয় ত্বকের নির্জীবভাব, তা হলে তো আর কথাই নেই! মুখ যদি তেলের খনির মতো লাগে আর সঠিক মেকআপ আর স্কিনকেয়ার প্রডাক্ট বাছতে গিয়ে সমস্যায় পড়তে হয়, তা হলে কি আর ভালো লাগে? স্বাভাবিকভাবেই উত্তরোত্তর বাড়তে থাকে মুখের বিবর্ণভাব, ঘুম ভাঙতেই চোখে পড়ে নিত্যনতুন ব্রণ! মুখের বাড়তি তেল কমানো যতই মুশকিল হোক, তার জন্য মুখ শুকনো করার উপাদান বেছে নেওয়া মোটেই কাজের কথা নয়।

বরং তাতে সমস্যা জটিলতর হবে। তার চেয়ে ভালো এমন কিছু বেছে নেওয়া, যা প্রাকৃতিক - অর্থাৎ ঘরোয়া ফেস মাস্ক। রান্নাঘরে বা বাড়িতে সহজেই পাওয়া যায় এমন উপাদান দিয়ে ঝটপট তৈরি করে নিতে পারবেন এ সব ফেস মাস্ক। উজ্জ্বল, তেলমুক্ত ত্বকের জন্য প্রাকৃতিক উপাদান দিয়ে কী কী ফেস মাস্ক বানাতে পারবেন আপনি, এখানে রইল তারই কিছু হদিশ।

 

মুলতানি মাটির ফেস মাস্ক

মুলতানি মাটির ফেস মাস্ক

ঠাকুমা-দিদিমার মুখে মুলতানি মাটির গুণগান শুনেছেন নিশ্চয়ই! ঘরে বানানো মুলতানি মাটির ফেস প্যাক মুখ থেকে তেলময়লা শুষে নিতে দারুণ ভালো কাজ করে। মুলতানি মাটির মধ্যে তেল শুষে নেওয়ার গুণ রয়েছে যা মুখের তেলচকচকে ভাব কমায়। বহু প্রাচীন এই ঘরোয়া টোটকাটি ত্বকের গুণমানও উন্নত করে তোলে। মুখ পরিষ্কার তো হয়ই, সঙ্গে মুখে রক্ত সংবহনও উন্নত হয়, ফলে খুব কম সময়েই  ত্বক হয়ে ওঠে উজ্জ্বল ঝলমলে। দেখে নিন কীভাবে বানাবেন মুলতানি মাটির ফেস মাস্ক:

ধাপ 01: দু' টেবিলচামচ মুলতানি মাটি নিয়ে জলে আধ ঘণ্টা ভিজিয়ে রাখুন।

ধাপ 02: এবার ওই মিশ্রণে এক টেবিলচামচ গোলাপজল আর কয়েক ফোঁটা লেবুর রস দিন। মিশ্রণটা এখনও খুব ঘন মনে হলে আরও খানিকটা জল দিন। মুখ খুব শুকনো হয়ে যাবে মনে হলে কিছুটা দুধও এই মিশ্রণে যোগ করতে পারেন।

ধাপ 03: মিশ্রণটা মুখে লাগান। শুকিয়ে শক্ত হয়ে গেলে জল দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। সবচেয়ে ভালো ফল পেতে সপ্তাহে দু' তিনবার এই মাস্ক লাগান।

 

 

বেসনের ফেস মাস্ক

বেসনের ফেস মাস্ক

বেসন খেতে অনেকেই পছন্দ করেন না, কিন্তু মুখে বেসন লাগানোর উপকারিতাই আলাদা! বেসন ত্বক পরিষ্কার করে, ত্বকের টেক্সচার ভালো করে আর সেই সঙ্গে একটা স্বাভাবিক দীপ্তি এনে দেয়। বেসনের গুণ ত্বক টানটান রাখে, ত্বক এক্সফোলিয়েট করে এবং তেলময়লা পরিষ্কার করে দেয়। ফলে নিষ্প্রাণ তেলতেলে ত্বকের জন্য বেসন আদর্শ!
দেখে নিন কীভাবে বানাবেন বেসনের ফেস মাস্ক:

ধাপ 01: দু' টেবিলচামচ বেসনের সঙ্গে পাঁচ ফোঁটা লেবুর রস, আধ চাচামচ হলুদগুঁড়ো, আর 2-3 টেবিলচামচ দুধ মেশান। প্রয়োজনে জল মেশাতে পারেন।

ধাপ 02: সব উপাদান মেশানোর পর মুখে লাগিয়ে নিয়ে  20 মিনিট রাখুন। তারপর মুখ ধুয়ে ফেলুন আর দেখুন কীভাবে ত্বক ঝলমলে হয়ে ওঠে।

 

 

ফলের ফেস মাস্ক

ফলের ফেস মাস্ক

ফলে প্রচুর অ্যান্টিঅক্সিডান্ট রয়েছে তাই ফল খাওয়া স্বাস্থ্যের পক্ষে ভালো। তেমনি ভিটামিন সি সমৃদ্ধ ফলের রস বা শাঁস মুখে লাগানোও ত্বকের পক্ষে ভালো। টোম্যাটো, মুসুম্বি, পেঁপের মতো ফলে প্রচুর অ্যান্টিঅক্সিডান্ট রয়েছে যা ত্বকের তেলতেলেভাব কমায়, রোমছিদ্র সংকুচিত ও টানটান রাখে আর ত্বকের জেল্লা বাড়িয়ে তোলে।   

দেখে নিন কীভাবে বানাবেন ফ্রুট ফেস মাস্ক:

ধাপ 01: পছন্দের ফল বাটিতে ভালো করে চটকে নিয়ে মুখে লাগিয়ে 15 মিনিট রাখুন।

ধাপ 02: মুখ ধুয়ে ফেলুন। সেরা ফল পেতে সপ্তাহে বারতিনেক করতে হবে।
শশশহহ... নিজে নিজে মাস্ক বানাতে আলসেমি লাগছে? তা হলে জেনে নিন বিশেষ টিপস: পন্ড'স ব্রাইটেনিং শিট মাস্ক উইথ ভিটামিন সি অ্যান্ড 100% ন্যাচারাল পাইন্যাপল/ Pond’s Brightening Sheet Mask With Vitamin C And 100% Natural Pineapple ব্যবহার করে দেখুন। এতে রয়েছে আনারসের 100% প্রাকৃতিক নির্যাস এবং সিরাম ভিটামিন যা নিমেষে আপনার ত্বকে এনে দেয় জেল্লা। এটি ত্বক বিশেষজ্ঞদের দ্বারা পরীক্ষিত এবং অ্যালকোহল বা প্যারাবেনের মতো কোনও ক্ষতিকর উপাদান নেই। 100% পরিবেশবান্ধব কাপড় ব্যবহার করা হয়েছে এই শিট মা